আক্রান্ত ২৯ লাখের ওপর মৃত্যু ২ লাখ ৩ হাজার : ছাড়পত্র পেলেন উহানের শেষ রোগীও

সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০২০

কাগজ ডেস্ক : নভেল করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের সেই উহান শহরের হাসপাতালগুলোতে আজ আর কোনো কোভিড-১৯ রোগী নেই। শেষ গুরুতর অসুস্থ রোগীটিও হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়ে গেছেন গত শুক্রবার। অন্যদিকে স্বল্পমাত্রায় হলেও করোনার অভিশাপমুক্ত হতে শুরু করেছে স্পেন। শেষ একদিনে সেখানে মারা গেছেন ২৮৮ জন। গত এক মাসে একদিনে এটাই সে দেশে সর্বনি¤œ মৃত্যুর ঘটনা। এছাড়া দেশব্যাপী ৯ লাখ ৬১ হাজার আক্রান্ত নিয়ে বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের তালিকায় এখনো শীর্ষে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ৫৩ হাজার ৮০০ মৃত্যু নিয়ে মৃত্যু তালিকারও শীর্ষে তারাই। অথচ দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রথম দিকে এই বৈশ্বিক মহামারিকে গুরুত্বই দিতে চাননি। সে দেশে সর্বাধিক বিপর্যস্ত অঙ্গরাজ্য নিউইয়র্কে আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৮৩ হাজার, মারা গেছেন ২২ হাজার মানুষ। কাছাকাছি নিউজার্সিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৬ হাজার, মৃত্যু ৬ হাজার। এরপর ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যে আক্রান্ত হয়েছে ৫৪ হাজার, মৃত্যু ২ হাজার ৮০০ জন। অন্যদিকে এ সময়ে বিশ্বজুড়ে মারা গেছেন ২ লাখ ৩ হাজার ২৮৯ জন। আর আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ লাখ ২২ হাজার। করোনায় আক্রান্তের পর সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৮ লাখ ৩৭ হাজার মানুষ।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের আরকানসাস, নর্থ ক্যারোলিনা, ওহিও এবং ভার্জিনিয়া অঙ্গরাজ্যের কারাগারগুলোতে পরীক্ষা করে দেখা গেছে, সেখানকার ৩ হাজার ২৭৭ জন করোনা ভাইরাস পজিটিভ। কিন্তু অবাক করা বিষয় হলো, তাদের মধ্যে ৯৬ শতাংশের শরীরেই কোনো উপসর্গ দেখা যায়নি। কারাগার কর্তৃপক্ষের বরাত দিয়ে গতকাল রবিবার রয়টার্স এ তথ্য জানায়। বিশ্লেষকরা বলছেন, মার্কিন অঙ্গরাজ্যের কারাগারগুলোতে যে ১৩ লাখ কয়েদি রয়েছে, শুধু তাদের মধ্যেই এভাবে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ছে তা নয়। বিশ্বজুড়েই উপসর্গহীন রোগীরা ভাইরাসটি ছড়াতে অন্যতম ভূমিকা রাখছেন। এ ছাড়া এ সময়ে স্পেনে আক্রান্ত ২ লাখ ২৪ হাজার, মৃত্যু ২৩ হাজার; ইতালিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৯৬ হাজার, মৃত্যু ২৬ হাজার ছাড়িয়ে; ফ্রান্সে আক্রান্ত ১ লাখ ৬৫ হাজার, মৃত্যু ২৩ হাজার; জার্মানিতে আক্রান্ত ১ লাখ ৫৭ হাজার, মৃত্যু ৬ হাজার; যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ১ লাখ ৪৮ হাজার, মৃত্যু ২০ হাজার ছাড়িয়ে; তুরস্কে আক্রান্ত ১ লাখ ৮ হাজার, মৃত্যু ২ হাজার ৮০০; ইরানে আক্রান্ত ৯১ হাজার, মৃত্যু প্রায় ৬ হাজার; রাশিয়ায় আক্রান্ত ৮১ হাজার, মৃত্যু ৭৫০; ব্রাজিলে আক্রান্ত ৬০ হাজার, মৃত্যু ৪ হাজার ছাড়িয়ে; বেলজিয়ামে আক্রান্ত ৪৬ হাজার, মৃত্যু ৭ হাজার ছাড়িয়ে; কানাডায় আক্রান্ত ৪৫ হাজারের বেশি, মৃত্যু আড়াই হাজার; নেদারল্যান্ডসে আক্রান্ত ৩৭ হাজার, মৃত্যু সাড়ে ৪ হাজার; সুইজারল্যান্ডে আক্রান্ত ২৯ হাজার, মৃত্যু দেড় হাজারের বেশি; ভারতে আক্রান্ত ২৬ হাজারের বেশি, মৃত্যু ৮২৫; সৌদি আরবে আক্রান্ত ১৬ হাজার, মৃত্যু ১৩৬; ইসরায়েলে আক্রান্ত ১৫ হাজার, মৃত্যু ১৯৯; সিঙ্গাপুরে আক্রান্ত ১৪ হাজার, মৃত্যু ১২; জাপানে আক্রান্ত ১৩ হাজার, মৃত্যু ৩৬০ এবং পাকিস্তানে আক্রান্ত ১৩ হাজার ও মৃত্যু ২৬৯।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj