ধান কেটে দিচ্ছে তাড়াশের দত্তবাড়ী গ্রামের শিক্ষার্থীরা

সোমবার, ২৭ এপ্রিল ২০২০

তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি : কলেজ-শিক্ষক প্রভাষক প্রদীপ কুমার মাহাতো, নিরব রজক, প্রভাত মাহোতা, অঞ্জনা রানী মাহাতো, প্রকাশ মাহাতোসহ ১৫ জন শিক্ষার্থীদের কেউ কেউ বিশ^বিদ্যালয়ে আবার কেউ কলেজে পড়ছেন। করোনাকালে গ্রামেই অলস সময় কাটাচ্ছিলেন তারা। সবাই মিলে স্থির করলেন গ্রামের অসহায় কৃষকদের বোরো ধান কেটে দেবেন।

বিষয়টি গ্রামের কলেজ-শিক্ষক প্রদীপ কুমার মাহাতো ও স্থানীয় গ্রামপ্রধান অজিত মাহাতো জিতুকে জানান। রাতে স্থির করা পরিকল্পনা সকালেই তারা বাস্তবে রূপ দেন। গতকাল রবিবার সকালে কাস্তে হাতে তারা নেমে পড়েন গ্রামের বিধবা স্কুল-শিক্ষিকা গীতা রানী মাহাতোর পাকা বোরো ধানের জমিতে। সবাই মিলে প্রায় ৩ বিঘা জমিতে ধান কাটা শুরু করেন। তাদের উৎসাহিত করতে গ্রামের প্রধান অজিত মাহাতো জিতু মুড়ি, চানাচুর ও গুড় নিয়ে সকালের নাস্তা করতে দেন। সবার সম্মিলিত প্রচেষ্টায় একযোগে দুপুরের মধ্যে ওই শিক্ষিকার ৩ বিঘা জমির পাকা বোরো ধান কেটে ফেলা হয়। শিক্ষার্থী অঞ্জনা মাহাতো জানান, এখন কাটা ধানগুলো মাথায় করে বাড়িতে নিয়ে গিয়ে তা মাড়াই করে ঘরেও তুলে দেবেন। কাজ শেষ করে তবেই তারা বাড়িতে ফিরবেন।

গ্রামের কলেজ-শিক্ষক প্রদীপ কুমার মাহাতো বলেন, করোনাকালে তাদের গ্রামের যতজন শিক্ষার্থী আছে তাদের সবাইকে নিয়ে সামাজিক দূরত্ব রেখে অসহায় কৃষকদের ধান কেটে ঘরে তুলে দিতে তারা সার্বিকভাবে সহযোগিতা করব।

এদিকে তাড়াশ দত্তবাড়ী গ্রামের শিক্ষার্থীদের ধান কাটার দৃশ্য ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়। আর নেটিজনরা তাদের এ কাজের জন্য প্রশংসা করতে থাকেন।

সারাদেশ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj