প্রধানমন্ত্রী ও স্পিকারের শোক : মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক আসাদুজ্জামান আর নেই

রবিবার, ২৬ এপ্রিল ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক, টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইল-২ (ভূঞাপুর- গোপালপুর) আসনের সাবেক সাংসদ, বাংলাদেশ সরকারের প্রথম অর্থ সচিব, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক উপদেষ্টা ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক খন্দকার আসাদুজ্জামান ঢাকার গুলশানের নিজ বাসায় মারা গেছেন। গতকাল শনিবার বিকাল ৪টার দিকে তিনি মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। তিনি দীর্ঘদিন ধরে হৃদরোগে ভুগছিলেন। সাবেক সাংসদ খন্দকার আসাদুজ্জামানের ছেলে খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেল মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, সন্তান, নাতি-পুতিসহ অসংখ্যা গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বি মিয়া, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুুন ও শিল্প প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার।

শোক বার্তায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং বিভিন্ন গণতান্ত্রিক সংগ্রামে তার ভূমিকা জাতি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে। বর্ষীয়ান এ নেতার মৃত্যুতে জাতি একজন ত্যাগী আওয়ামী লীগ নেতাকে হারাল। শোক বার্তায় স্পিকার বলেন, খন্দকার আসাদুজ্জামানের মৃত্যুতে জাতি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে হারাল।

পরিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সাবেক সাংসদ খন্দকার আসাদুজ্জামানের প্রথম জানাজা শনিবার রাতে ঢাকার গুলশান বাসায় অনুষ্ঠিত হওয়ার পর আজ রবিবার দ্বিতীয় জানাজা তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলার নারুচিতে অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, খন্দকার আসাদুজ্জামান টাঙ্গাইল-২ আসন থেকে ১৯৯৬ সালের জুন মাসের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচন, ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচন এবং ২০১৪ সালে দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj