ইফতারিতে ঠাণ্ডা পানীয়

রবিবার, ২৬ এপ্রিল ২০২০

সারা বছরের খাদ্যাভ্যাস বদলে যাবে রোজার এই এক মাসে। সারাদিন রোজা রাখার পর ক্লান্তি দূর করতে ইফতারে এক গøাস ঠাণ্ডা শরবত যেন না হলেই নয়। দুধ বা ফল দিয়ে বানানো ড্রিংকসও প্রাকৃতিকভাবে চিনি ও ক্যালরির ভালো উৎস। পানিশূন্যতা, কোষ্ঠকাঠিন্যসহ নানাবিধ সমস্যায় তাই ফল ও বিবিধ উপাদান মিশ্রিত পানীয়র বিকল্প নেই। রোজার মাসের জন্য ভিন্ন ভিন্ন ৪ ধরনের পানীয়র রেসিপি থাকছে এবার!

কৃতজ্ঞতা : ভোজন রসিকদের ফেসবুক গ্রুপ : মধ্যরাতের কিচেন

পেঁপের স্মুদি

রেসিপি ও ছবি : কানিজ রেহনুমা

যা লাগবে : গাছ পাকা পেঁপে, পানি, চিয়া সীড- ২ চামচ, চিনি-পরিমানমত, লেবুর রস- ২ টেবিল চামচ।

যেভাবে করবেন : স্মুদি বানানোর ১৫ মিনিট আগে চিয়া সীড পানিতে ভিজাতে হবে। এরপর বেøন্ডারে পেঁপে, পানি, ভেজানো চিয়া সীড, স্বাদমতো চিনি ও লেবু ঢেলে ভালভাবে বেøন্ড করতে হবে। পরিবেশনের আগে ইচ্ছে হলে বরফকুঁচি ব্যবহার করতে পারেন।

মিন্ট লেমোনেড

রেসিপি ও ছবি : তাসলিমা কনা

যা লাগবে : পুদিনা পাতা- প্রয়োজনমত , লেবু-১টি বড়, টেলে নেয়া জিরা গুড়া –অর্ধেক চা চামচ, লবণ ১/৪চা চামচ, আদাবাটা ১/২ চা চামচ, গোলমরিচ ১/৪ চা চামচ। পানি অর্ধেক গøাস। ঠান্ডা পানি- পরিমাণমতো, চিনি- স্বাদ অনুযায়ী কম বেশি করে নিবেন (তবে, চিনির বদলে মধুও ব্যবহার করতে পারেন)।

যেভাবে করবেন : বেøন্ডারে সব উপকরণ একসাথে দিয়ে বেøন্ড করে নিবেন। বেøন্ড হয়ে গেলে ছেঁকে নিয়ে দুটো গøাসে কিছু বরফ কিউব দিয়ে এর মধ্যে মিশ্রণটুকু গেলে দিবেন।এখন গøাসটা পূর্ণ করতে ঠান্ডা পানি মিশিয়ে এরমধ্যে রিং করে কাটা লেবু ও পুদিনা পাতা দিয়ে পরিবেশন করতে পারবেন।

বানানা কার্ড মিল্কশেক

রেসিপি ও ছবি : অনন্যা অনু

যা লাগবে : কলা – ১ টি, চিনি – ১ টে.চামচ, টক দই – ৩ টে.চা, আইসক্রিম – ২ স্কুপ, ঠান্ডা তরল দুধ – ১ কাপ, কাঠ বাদাম – ৩/৪ টি, বরফ টুকরো- প্রয়োজনমতো।

যেভাবে করবেন : ১ টি কলা, ১ টে চামচ চিনি, ১ কাপ দুধ, ৪/৫ টুকরো বরফ, আইসক্রিম ২ স্কুপ, কাঠ বাদাম ৩/৪ টি, টক দই ৩ টে.চা সব কিছু একত্রে বেøন্ড করতে হবে। পরিবেশনের জন্য গøাসে পরিমান মতো জুস নিয়ে উপরে কিছু কাঠ বাদাম কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

চুই ঝালের রেসিপি

চুই একধরনের লতাজাতীয় উদ্ভিদ। এর শেকড়ের টুকরোকে বলা হয় ‘চুইঝাল’। এর পাতা কিছুটা লম্বা ও পুরু। তবে, পাতায় কোন ঝাল নেই। এই কাণ্ড বা লতা কেটে টুকরো টুকরো করে মাছ-মাংস রান্নায় ব্যবহার করা হয়। রান্নার পর গলে যাওয়া সেসব টুকরো চুষে বা চিবিয়ে খাওয়া হয়। খুব ঝাল হলেও এর একটা অন্য রকম স্বাদ ও ঘ্রাণ আছে। খুলনার চুই ঝালের গরুর মাংসের সুনাম দেশজুড়ে। তাই রোজায় স্বাদবদলের জন্য সেহেরির রসনার মেন্যুতে রাখতে পারেন এই মজাদার ঝাল ঝাল খাবারটি। কিভাবে সহজেই রান্না যাবে এই মজাদার খাবারটি সেই ভিডিও দেখতে মোবাইলে কিউ আর কোডটি স্ক্যান করুন। সৌখিন রন্ধনশিল্পী জেরিন হক ভিডিওচিত্রে দেখিয়েছেন পুরো রান্নার কৌশল।

গ্রিন লেডি

রেসিপি ও ছবি : রেহানা আখতার পলি

যা লাগবে : আনারসের রস ১ কাপ, মাল্টার রস ১ কাপ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ প্রয়োজনমতো, চিনি স্বাদমতো, ঠাণ্ডা পানি ২ কাপ, সিরাপ ২ টে চা, বরফ কুচি পরিমাণমতো, গ্রিন ফুড কালার পরিমান মতো।

যেভাবে করবেন : প্রথমে আনারস ও মাল্টার খোসা ও মাঝখানের অংশ ফেলে টুকরা করে নিন। এবার আনারস, মাল্টা, কাঁচা মরিচ, লেবুর রস, চিনি, ঠাণ্ডা পানি, সিরাপ, গ্রিন ফুড কালার দিয়ে বেøন্ডারে দিন। এরপর জুস চালনি দিয়ে ছেঁকে গøাসে বরফ কুচি মিশিয়ে পরিবেশন করুন।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj