বৈশাখে ট্রেন্ডে ইন…

সোমবার, ১৩ এপ্রিল ২০২০

মাত্র একদিন পরই বাংলা নতুন বছর, ১৪২৭। প্রাচীনকাল থেকেই গ্রাম কিংবা শহর- সবখানেই বাংলা নববর্ষ নিয়ে মাতামাতি করতে দেখা যায় উৎসবপ্রিয় বাঙালিদের। কিন্তু এবারের বর্ষবরণ অনুষ্ঠান করার সুযোগ পাচ্ছেন না কেউই। বকুলতলা, বটমূল থেকে নিজর্লা চরের বৈশাখী মেলা, সরারকান্দির মুচিরামের মেলা সব ছাপিয়ে বাংলার টেকনাফ তেঁতুলিয়া প্রান্তর কাঁপিয়ে বরণ করে নেওয়া হবে না বাংলা নববর্ষকে। এবারই প্রথম বৈশাখের আনন্দ ¤øান হলো করোনায়! এই দুঃসময়ে শারীরিক সুস্থতার জন্য বাড়িতে থাকা জরুরি। এ সময়ে মনকেও রাখতে হবে সুস্থ ও সজীব। করোনাভাইরাসে আতংক নয়, প্রয়োজন সবার সচেতনতা ও পরিচ্ছন্নতা। তাই এবারের বৈশাখ করুন বাড়িতেই!

বাংলাদেশের ইতিহাসে এই প্রথমবার সবার সাথে মিলেমিশে নয়. বরং ঘরে বসে, প্রিয়জনদের সাথেই পহেলা বৈশাখ উদযাপন করবেন সবাই। বৈশাখের বিশেষ মেন্যু, ইন্টেরিয়র, নতুন পোশাক নিয়েও ভাবনা শুরু হয়ে গেছে অনেকের। আর বৈশাখের ফ্যাশন নিয়ে যারা সারাবছর মুখিয়ে থাকেন, তারা বাইরে নতুন পোশাক পরে বের হতে না পারলেও থাকতে পারেন ট্রেন্ডে ইন। কিছু পোশাকী থিম নিয়েই এবারের লেখাটি। বৈশাখী মোটিফ হিসাবে যার আবেদন সবসময়!

থিম ভিত্তিক শাড়ি

এই অঞ্চলে কোনো মেয়ের শাড়ি পছন্দ নয়, এমনটি বিরল। উপমহাদেশীয় নারীর সাধারণ এই পরিধেয় অসাধারণ হয়ে ওঠে স্টাইলিং ও বিচিত্র নকশার কারণেই। শাড়ি নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট কম হয়নি, এখনো হচ্ছে। এর ম্যাটেরিয়ালে যেমন ভিন্নতা এসেছে, তেমনি ডিজাইনেও যোগ হয়েছে নতুন নতুন থিম আর নানান মোটিফ। এমনকি ফিউশনও। উৎসবে থিমভিত্তিক শাড়ি আজকাল পোশাক সংস্কৃতির অংশ। এখন প্রথাও ভেঙে ফেলতে চাইছেন ডিজাইনাররা। তবে গতানুগতিকতাই বেশি চোখে পড়ে। তরুণীদের বৈশাখেও পছন্দ এধরনের শাড়ি।

আল্পনা

শত বছর ধরেই বাঙালি নারীরা গেরস্থের কল্যাণে, এবং গৃহসজ্জায় হলুদ, কয়লা, বেটে নেয়া চালের পেস্ট, খয়ের ইত্যাদি দিয়ে উঠানে আল্পনা আঁকতেন। আল্পনার প্রতিটি রেখায় ফুটে উঠতো গ্রামের সরল জীবনের গল্পকথা।পোশাকে রঙ ও রেখার এই ঐতিহ্যবাহী কারুকার্য এবার পহেলা বৈশাখের একটি অন্যতম প্রধান মোটিফ। স্ক্রিনপ্রিন্ট, ব্লুক এবং এম্ব্রয়ডারিতেও বৈশাখের আল্পনা ফুটিয়ে তুলেছে বেশ কিছু ব্র্যান্ড।

রিক্সা ও রিক্সাপ্রিন্ট

বাংলাদেশের রিক্সায় আঁকা দেশি মোটিফ এবং বাংলা অক্ষর ও লেখাচিত্রের এতো বৈচিত্র্য আর কোন মাধ্যমে সচরাচর দেখা যায়না। এই কারণেই রিক্সাপেইন্টকে এখন শিল্পের সাথে তুলনা করা হয়। এই পহেলা বৈশাখে রিক্সা এবং রিক্সাচিত্র ছাপানো পোশাকগুলি আপনার নজর কাড়বে।

পেঁচা

বাঙালির বিশ্বাস, গল্পকথা এবং মঙ্গলশোভাযাত্রার একটি বড় অংশজুড়ে আছে পেঁচা। বলা ভালো, রঙিন পেঁচা। ফ্যাশনে মোটিফ হিসেবে পেঁচা অসম্ভব শক্তিশালী। কেননা শুধুমাত্র একটি রঙিন পেঁচা দিয়েই আপনি যেকোন বাঙালিকে পহেলা বৈশাখের উৎসব এবং আয়োজন দুটিই বুঝিয়ে ফেলতে পারবেন।

টিয়া

এককালে বৈশাখী মেলার সবচে জমজমাট কোণটি থাকতো টিয়াপাখির দখলে। সাধারণ মানুষের মজার ভাগ্যগনণা খেলার মূল খেলোয়াড়ই তো ছিলো সে! কালের বিবর্তনে খেলাটি প্রায় বিলুপ্ত হয়ে গেছে। কিন্তু ফ্যাশনের কল্যানে এবার ইউনিক মোটিফ হয়ে বেশ পোক্ত স্থান করে নিয়েছে বৈশাখ কালেকশনে।

পুতুলনাচ

বৈশাখী মেলায় পুতুল নাচ একসময় ছিল ভীষণ জনপ্রিয়। লোকজ গানের সাথে বৈশাখী মেলায় রঙিন এই পুতুলগুলো কতো গল্পই না বলে গেছে এককালে। এখনো মাঝে মাঝে শহুরে বৈশাখী আয়োজনে দেখা মেলে সেই পুতুল নাচিয়েদের। আর পুতুলগুলোর দেখা মিলে দেশীয় ব্র্যান্ডের বৈশাখ কালেকশনে।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj