আইপিএল নিয়ে শঙ্কা বাড়ছে

শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০

কাগজ ডেস্ক : মরণব্যাধি করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে কাঁপছে সারাবিশ^। এ ভাইরাস এখন বিশ^জুড়ে মহামারি আকার ধারণ করেছে। এর জের ধরেই বিশ^ ক্রীড়া জগতে নেমে এসেছে স্থবিরতা। ক্রিকেটে এর প্রভাব পড়েছে অনেক আগেই। ইতোমধ্যেই আন্তর্জাতিক পর্যায়ের সব ধরনের ক্রিকেট বন্ধ ঘোষণা হয়েছে। একের পর এক দেশ ঘরোয়া পর্যায়ের ক্রিকেটও স্থগিত করে দিয়েছে। তাই জনপ্রিয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেটের আসর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) চলতি বছর আর মাঠে গড়াবে কিনা তা নিয়ে শঙ্কা বাড়ছে। এ বারের আইপিএলের ১৩তম আসর শুরু হওয়ার কথা ছিল ২৯ মার্চ। কিন্তু করোনার থাবায় ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। তারপরও যে টুর্নামেন্টের বল কবে মাঠে গড়াবে, এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। গতকাল ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা থাকলেও সেটি বাতিল করেছে ভারতের ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। এর ফলে আইপিএলের ভবিষ্যৎ নিয়ে ক্রমেই শঙ্কা বাড়ছে।

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের মালিকদের একজন নেস ওয়াদিয়া বলেন, ‘মনুষ্যত্ব সবার আগে। তার পরে বাকি সব কিছু। এখনো পর্যন্ত করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির একটুও উন্নতি হয়নি। ফলে এখনই আইপিএল নিয়ে আলোচনা করার মতো অবস্থা নেই।’

করোনা সর্তকতায় বিশে^র সমস্ত ক্রীড়া-ইভেন্ট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাই কদিন আগে আইপিএল শুরুর পাঁচটি সম্ভাব্য তারিখ স্থির করে রেখেছিল বোর্ড। কিন্তু গোটা বিশে^র করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে। ভারতেও বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা।

একাধিক রাজ্যে ‘লকডাউন’ ঘোষণা করে দেয়া হয়েছে। এমন অবস্থায় আইপিএলের বিষয় নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘অলিম্পিকের মতো মেগা ইভেন্ট যদি পিছিয়ে যেতে পারে, তা হলে আইপিএল তো সে তুলনায় অনেক ছোট। এই অবস্থায় আইপিএল আয়োজন করা কঠিন হয়ে পড়ছে। মে মাসে শুরু করা গেলেও এর ব্যাপ্তি কমিয়ে আনার সম্ভাবনা রয়েছে।’

ভারতের সংবাদমাধ্যমে গুঞ্জন, করোনার কারণে পরিস্থিতি প্রতিক‚ল হওয়ায় বাতিল হতে পারে আইপিএলের ত্রয়োদশ আসর। অথবা চলতি বছরের শেষ দিকে সীমিত আকারে আইপিএল আয়োজন করা যায় কিনা, সে ব্যাপারেও ভাবছে বিসিসিআই।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj