করোনা যোদ্ধাদের সাকিবের স্যালুট

শুক্রবার, ২৭ মার্চ ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের আঘাতে বিপর্যস্ত সারা বিশ^। প্রতিদিনই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে এ মহামারি ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত মানুষের সংখ্যা। ভয়ঙ্কর এ ভাইরাসের থাবা থেকে মুক্ত হতে পারেনি বাংলাদেশও। প্রাণঘাতী এ ভাইরাস মোকাবিলায় আমাদের দেশের ডাক্তার ও নার্সদের মতো চিকিৎসাকর্মীরা একযোগে কাজ করছে। এমনকি প্রতিদিন সেনাবাহিনী ও পুলিশের মিলিত উদ্যোগে মানুষকে সচেতন করতে কাজ করছে। তাই দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে যারা এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করছেন তাদের ‘সত্যিকারের হিরো’ বলে অভিহিত করেছেন বিশ^সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। এমনকি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামা সবাইকে সম্মান জানিয়ে তিনি স্যালুট দেয়া একটি ছবি পোস্ট করেছেন।

মরণঘাতী এ ভাইরাসে শিশু থেকে বৃদ্ধ কেউ রেহাই পাচ্ছে না। তাই ক্রিকেটপ্রেমীরা আগেই জেনেছেন যে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হোটেলে স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে আছেন দেশসেরা অলরাউন্ডার সাকিব। পরিবারের সঙ্গে অবস্থান করতে যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে গেছেন তিনি। কিন্তু সেখানে পৌঁছে ঝুঁকি নিতে চাননি। তাই এখনো পরিবারের সঙ্গে দেখা করেননি। বাংলাদেশের সাবেক এই অধিনায়ক তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক ভিডিও বার্তায় এসব তথ্য জানান। এছাড়া দেশের মানুষকে করোনা নিয়ে সতর্ক বার্তা দিয়েছেন তিনি। শুধু নিজেকে কোয়ারেন্টাইনড করেই দায়িত্ব শেষ মনে করেননি বিশ^সেরা অলরাউন্ডার এ ক্রিকেটার। যেহেতু করোনার বিরুদ্ধে সরাসরি লড়াই করার কিছু নেই, শুধু সৃষ্টি করা যায় সচেতনতা। আর সে কাজটি নিয়মিত করে যাচ্ছেন সাকিব। কোয়ারেন্টাইনে থেকে নিয়মিত ভিডিওবার্তার মাধ্যমে বিভিন্ন সচেতনতামূলক বার্তা দিচ্ছেন সাকিব। যাতে করে কিছুটা হলেও সচেতনতা বৃদ্ধি পায় সাধারণ জনগণের মাঝে। একই সঙ্গে করোনার বিরুদ্ধে যারা যুদ্ধে নেমেছেন- সেসব মানুষদের শ্রদ্ধা ও সম্মান জানিয়েছেন তিনি।

বছরচারেক আগে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচে বেন স্টোকসকে আউট করার পর মাঠের মধ্যেই স্যালুট দিয়েছিলেন সাকিব। এরপর তা পরিচিত পায় ‘সাকিবীয় স্যালুট’ হিসেবে। সেই ছবিটিকে সাকিব ব্যবহার করেছেন করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে নামা সবাইকে স্যালুট জানানোর জন্য। এ বিষয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে লিখেছেন, ‘সব দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে যারা মারাত্মক এই ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন প্রতিনিয়ত, তাদের জানাই আমার সালাম। ধন্যবাদ জানাই প্রতিটি ডাক্তার, নার্স, চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যসেবা কর্মী, স্বেচ্ছাসেবক, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর সদস্য এবং সরকারি কর্মকর্তাদের যারা নিঃস্বার্থ ও অক্লান্তভাবে লড়াই করে চলেছেন।’

একই সঙ্গে তিনি সাধারণ জনগণকেও আহ্বান জানিয়েছেন, ‘আমরা তাদের সাহায্য করতে যা পারি তা হলো- বাসায় অবস্থান করা, প্রয়োজনীয় সতর্কতা অবলম্বন করা এবং প্রয়োজনীয় পরামর্শ মেনে চলে এই কঠিন সময়ে তাদের সহায়তা করা। তবেই আমরা একসঙ্গে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পারব। আল্লাহ আমাদের সবাইকে সাহায্য করুন।’

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj