চিকিৎসক-নার্স সুরক্ষা : ৩ হাজার পিপিই দিল কনফিডেন্স সিমেন্ট

বৃহস্পতিবার, ২৬ মার্চ ২০২০

চট্টগ্রাম অফিস : সরকারিভাবে চিকিৎসক ও নার্সদের সুরক্ষায় এ পর্যন্ত পিপিই’র (ব্যক্তিগত সুরক্ষা সরঞ্জাম) কোনো ব্যবস্থা করা হয়নি চট্টগ্রামে। তবে এরই মধ্যে চট্টগ্রামের কিছু ধনাঢ্য ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান এ মানবিক কাজে এগিয়ে এসেছেন। কোনো ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বা কোনো তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান নয় বরং এ কাজে এগিয়ে এসেছে সিমেন্ট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান কনফিডেন্স সিমেন্ট লিমিটেড নামে একটি প্রতিষ্ঠান। তারা গতকাল বুধবার ঢাকা ও চট্টগ্রামে চিকিৎসক-নার্সদের জন্য ৩ হাজার পিপিই সরবরাহ করেছে।

করোনা ভাইরাসের এই মহামারির সময়ে চিকিৎসার স্বার্থে, মানুষের স্বার্থে সর্বোপরি দেশের স্বার্থে এগিয়ে এসেছে সিমেন্ট কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ। গতকাল কনফিডেন্স সিমেন্টের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জহির উদ্দিন আহমদ ভোরের কাগজকে বলেন, একান্ত মানবিক কারণে আমরা এ কাজটি করেছি। এর মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ফৌজদারহাটে অবস্থিত বিআইটিআইডি (বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস) এর কাছে আমরা ১ হাজার পিপিই পৌঁছে দিতে পেরেছি। আরো ২ হাজার পিপিই ঢাকায় স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের মাধ্যমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী হাসপাতাল ও কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবারের মধ্যে তা পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী কনফিডেন্স সিমেন্টের ব্যাবস্থাপনা পরিচালক জহির উদ্দিন বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি সমাজের বিত্তবান ও শিল্প প্রতিষ্ঠানের মালিকদের কাছে অনুরোধ করব, আপনারা জাতির এই দুর্যোগের সময় এগিয়ে আসুন, মানুষকে বাঁচান, দেশকে বাঁচান।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. শামীম হাসান বলেন, এইসব পিপিই পেয়ে সত্যিই আমাদের চিকিৎসকদের প্রাণে পানি এসেছে। কেননা এতদিন একটি পিপিই ছিল না আমাদের কাছে। এখন চিকিৎসকরা রোগীদের সেবায় আত্মনিয়োগ করতে পারবেন কিছুটা আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে। ডা. শামীম আরও বলেন, এরই মধ্যে ঢাকা থেকে বেসরকারি পর্যায়ে আরো প্রায় ১ হাজার পিপিই ও ২০ হাজার মাস্ক সরবরাহ করার প্রতিশ্রæতি দিয়েছে কয়েকটি সংস্থা। এভাবে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি ও পেশার মানুষ এগিয়ে আসলে আমরা এই জাতীয় এ দুর্যোগ মোকাবিলা করার সাহস পাব।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল এন্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (বিআইটিআইডি) পরিচালক ডা. এম এ হাসান চৌধুরী কনফিডেন্স সিমেন্টের পক্ষ থেকে পিপিই পাওয়ার কথা স্বীকার করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

একই সঙ্গে তিনি বলেন, ইতোমধ্যে করোনা রোগীদের পরীক্ষার কিট পাওয়া গেছে।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj