স্বাধীনতা দিবসের কর্মসূচি বাতিল করলো বিএনপি

মঙ্গলবার, ২৪ মার্চ ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ব্যাপকতার পরিপ্রেক্ষিতে স্বাধীনতা দিবসের সব কর্মসূচি বাতিল করেছে বিএনপি। গতকাল সোমবার রাতে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

গতকাল সন্ধ্যায় গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আসেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি কয়েকটি ইলেক্ট্রনিক ও গণমাধ্যমের সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে ইন্টারনেটে লাইফ সম্প্রচারে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সার্বিক পরিস্থিতির ওপর কথা বলেন। এ সময় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক রিয়াজউদ্দিন নসু ও চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের কর্মকর্তায় শায়রুল কবির খান উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, কোনো রকমের জনসমাবেশ যেন না হয় সে জন্য নেতাকর্মীদের দৃষ্টি রাখার আহ্বান জানাচ্ছি। নেতাকর্মীদের বলেছি, যে যে অবস্থায় আছেন, নিজেদের সাবধান রেখে জনগণের মধ্যে সচেতনতার কাজ করবেন এবং দলের কর্মীরা যেন নিয়ম মেনে চলেন, সাবধানে থাকেন- সেই বিষয়গুলো নিশ্চিত করবেন।

করোনাভাইরাসে মোকাবিলায় সরকারের ছুটি ঘোষণা ও বিভাগীয় জেলা পর্যায়ে সেনাবাহিনী মোতায়েনের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা এবং জনগণকে আইসোলেটেড করে রাখার যে ব্যাপারটা আছে- একজন থেকে আরেকজনকে আইসোলেটেড করে রাখা- এ ব্যাপারটাকে সরকারের গুরুত্ব দেয়া উচিত ছিল। যদিও তারা (সরকার) দেয়া শুরু করেছেন।

নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এবং জন হককিন্সের প্রকাশিত মেডিকেল রিপোর্টের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এটা একটা আতঙ্ক সৃষ্টিকারী রিপোর্ট। বলা হচ্ছে, প্রায় ৫ লাখ লোক আক্রান্ত এবং বহু মানুষ এখানে মারা যাবে। আমরা প্রথম থেকেই এই বিষয়গুলোকে নজর দিয়ে ব্যবস্থা নিতে বলেছিলাম।

করোনাভাইরাসের কারণে গামেন্টর্স শিল্প রক্ষায় মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে আলোচনা করে ব্যবস্থা এবং প্রান্তিক মানুষের জন্য ভাতা প্রদানে সরকারের প্রতি দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়ে দেশের ৬৩ জন বিশিষ্ট নাগরিকের দেয়া যুক্ত বিবৃতিকে সমর্থন জানিয়ে তিনি বলেন, আমরা আমাদের তরফ থেকে যতটা সম্ভব অথোরিটির সঙ্গে যোগাযোগ করে তাকে যেন সম্পূর্ণভাবে নিরাপদ রাখা হয় তার জন্য আমরা কথা বলেছি এবং তারা আমাদের নিশ্চয়তা দিয়েছেন যে সেটা তারা করছেন। আপনারা জানেন যে, তার পরিবারের থেকে আবেদন করা হয়েছে যে, সম্পূর্ণভাবে মানবিক কারণে তাকে চিকিৎসার জন্য মুক্ত করা হোক। আমরা যেটা পূর্ণ সমর্থন জানিয়ে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছি যে, তাকে দ্রুত মুক্ত করা হোক।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj