মৌলভীবাজারে লন্ডন ফেরত নারীর মৃত্যু : ৫ বাড়ি লকডাউন, পরে প্রত্যাহার

মঙ্গলবার, ২৪ মার্চ ২০২০

বিকুল চক্রবর্তী, কাগজ প্রতিবেদক, শ্রীমঙ্গল : মৌলভীবাজারে জ্বর সর্দি কাশি নিয়ে রেজিয়া বেগম (৬০) নামে এক লন্ডন প্রবাসী নারীর মৃত্যু হয়েছে। এ খবর পেয়ে প্রশাসন ওই নারীর বাড়িসহ আশপাশের ৫টি বাড়ি লকডাউন করলেও কয়েক ঘণ্টা পরেই তা প্রত্যাহার করা হয়।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. পার্থ সারথি কানুনগো জানান, রবিবার দুুপুরে শহরের কাশিনাথ রোডের ওই রোগীকে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে এলে তার শরীর ঠাণ্ডা পাওয়া যায়। এরপর ইসিজি করে দেখা যায় তিনি মারা গেছেন। পরে স্বজনরা মরদেহ নিয়ে যান এবং একটি ফ্রিজিং গাড়িতে তা রাখেন। গতকাল সোমবার দুপুরে সদর উপজেলার গিয়াসনগরে তাকে দাফন করা হয়। এদিকে গতকাল বিকেলে স্বাস্থ্য বিভাগ খবর পায়, নিহত ওই নারীর জ্বর, সর্দি, কাশি ছিল। করোনার সঙ্গে বেশ কিছু লক্ষণ মিলে যাওয়ায় বিকেলেই ওই নারীর বাড়িসহ আশপাশের ৫টি বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। পাশাপাশি হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স ও স্টাফ মিলে ৭ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

মৌলভীবাজার সদর উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বিনেন্দু ভৌমিক জানান, রেজিয়া বেগম কোন রোগে মারা গেছেন তা সঠিকভাবে বলা যাচ্ছে না। তিনি কবে লন্ডন থেকে এসেছেন তা জানার চেষ্টা চলছে।

এদিকে মৌলভীবাজারের সিভিল সার্জন ডা. তৌহিদ আহমদ গতকাল রাত সাড়ে ৮টার দিকে ভোরের কাগজকে জানিয়েছেন, প্রাথমিক পর্যবেক্ষণে প্রতীয়মান হয়েছে রেজিয়া বেগম করোনা আক্রান্ত ছিলেন না। তারা খবর পেয়েছিলেন, জ্বর-সর্দি নিয়ে অসুস্থ হয়ে তিনি মারা গেছেন। তাই আশপাশের ৫টি বাড়ি লকডাউনে রেখে তারা বিষয়টি গভীর অনুসন্ধান করেন। রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত রেজিয়ার স্বামীর সঙ্গে কথা বলে এবং তাদের দেশে আসার কাগজপত্র পর্যবেক্ষণ করে মোটামুটি নিশ্চিত হওয়া গেছে তিনি সংক্রমণে মারা যাননি। তবে ওই এলাকায় ইতালি প্রবাসী নাগরিকসহ আরো প্রবাসী রয়েছেন। তাদের কোয়ারেন্টানে থাকতে হবে এবং বাকি নাগরিকদের কোয়ারেন্টাইন তুলে দেয়া হবে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj