১০২ পয়েন্ট সূচক নেই ডিএসইতে : পুঁজিবাজারে আবারো বড় পতন

শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : দেশের পুঁজিবাজারে আবারো বড় পতন হয়েছে। করোনা ভাইরাস আতঙ্কে গত সোমবার ব্যাপক পতনের পর মঙ্গল ও বুধবার দুই কার্যদিবস বড় উত্থান হয়েছিল। তবে তা সোমবারের ক্ষতি পোষাতে যথেষ্ট ছিল না। এর মধ্যেই গতকাল বৃহস্পতিবার আবার বড় পতন হয়েছে পুঁজিবাজারে। এদিন ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সূচক পতনের সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে থেমেছে। আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচকটি পতনে ডাবল সেঞ্চুরি পূর্ণ করেছে। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই ও সিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গতকাল লেনদেনের শুরুতে ডিএসইতে সূচক বাড়লেও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তা কমতে থাকে। দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স সূচকটি ১০২ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ১৩০ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২২ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৩২ পয়েন্ট এবং সিডিএসইটি সূচকটি ১৮ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ৯৫৮, ১৩৮২ ও ৮১৫ পয়েন্টে।

এদিকে গতকাল ডিএসইর বাজার মূলধন ৬ হাজার ৩৫২ কোটি ৫৩ লাখ ১৮ হাজার টাকা কমে দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ২১ হাজার ৩৬২ কোটি ৫৬ লাখ ৮৩ হাজার টাকা। গত বুধবার ডিএসইর বাজার মূলধন অবস্থান করছিল ৩ লাখ ২৭ হাজার ৭১৫ কোটি ১০ লাখ ১ হাজার টাকায়। ডিএসইতে গতকাল টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৪০৯ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট। যা আগের দিন থেকে ১৩ কোটি ৯ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৪২২ কোটি ৫১ লাখ টাকার। ডিএসইতে ৩৫১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩৬টির বা ১০ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ২৯৩টির বা ৮৩ শতাংশের এবং ২২টি বা ৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

ডিএসইতে টাকার পরিমাণে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৮ কোটি ৪৬ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে ওরিয়ন ফার্মার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১১ কোটি ৫০ লাখ টাকার বিকন ফার্মা এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ১১ কোটি ৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ওরিয়ন ইনফিউশনের।

এছাড়া ডিএসইতে টপটেন লেনদেন থাকা অপর কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- গ্রামীণফোন, মুন্নু সিরামিক, স্কয়ার ফার্মা, সিলভা ফার্মা, ফার কেমিক্যাল, লাফার্জ হোলসিম এবং খুলনা পাওয়ার। অপর পুঁজিবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ২৩৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৬৪৩ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৩৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৩৮টির, কমেছে ১৮০টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৫টির দর। সিএসইতে ১১ কোটি ৬২ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj