বিক্রেতা উধাও ইনটেকের শেয়ারের

শুক্রবার, ১৩ মার্চ ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : বড় ধরনের পতনের মধ্য দিয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার দেশের পুঁজিবাজারে লেনদেন শুরু হলেও তালিকাভুক্ত ইনটেক লিমিডেটের শেয়ার কিনতে পারছেন না বিনিয়োগকারীরা। যে সব বিনিয়োগকারীর কাছে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার আছে তাদের কেউ শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হচ্ছেন না। ফলে ক্রেতা থাকলেও কোম্পানিটির শেয়ারের বিক্রেতা শূন্য হয়ে পড়েছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী, এদিন ইনটেকের শেয়ার লেনদেন শুরুর দাম ছিল ২০ টাকা ৭০ পয়সা দরে। এর থেকে ২ টাকা ৬০ পয়সা কমিয়ে ১৮ টাকা ১০ পয়সা দরে প্রথমে ১ হাজার শেয়ার ক্রয়ের আবেদন পড়ে। তবে কেউ এই দামে শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হননি। এরপর ১৯ টাকা ৯০ পয়সা করে ২১ হাজার শেয়ার ক্রয়ের আবেদন আসে। এ দামেও কেউ শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হননি। এরপর কয়েক দফা দাম বেড়ে ২১ টাকা ৭০ পয়সা দামে ৩ লাখ ৭২ হাজার ৭৬৪টি শেয়ার ক্রয়ের আবেদন পড়ে। এই দামেও কোনো বিনিয়োগকারী তাদের হাতে থাকা শেয়ার বিক্রি করতে রাজি হননি। ফলে কোম্পানিটির শেয়ারের বিক্রেতা শূন্যই থেকে গেছে। ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, এই কোম্পানিটির মোট শেয়ারের মাত্র ৩ দশমিক ৯৭ শতাংশ উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের কাছে। বাকি শেয়ারের মধ্যে ৮৫ দশমিক ৩১ শতাংশ রয়েছে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে। আর প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ১০ দশমিক ৭২ শতাংশ শেয়ার আছে।

২০০২ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত এই কোম্পানিটির পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৩১ কোটি ৩২ লাখ ১০ হাজার টাকা। মোট শেয়ার সংখ্যা ৩ কোটি ১৩ লাখ ২১ হাজার ২২৬টি। তালিকাভুক্তির পর প্রতি বছরই কোম্পানিটি শেয়ারহোল্ডারদের ১০ শতাংশ বা তার বেশি বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ হিসেবে দিয়েছে। অর্থাৎ লভ্যাংশ হিসেবে বোনাস শেয়ার দিয়ে কোম্পানিটি বছরের পর পর শেয়ার সংখ্যা বাড়িয়েছে।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj