সোনালি প্রেমের চিঠি

শনিবার, ৭ মার্চ ২০২০

আইয়ুব আহমেদ দুলাল

ভালোবাসি, ভালোবাসি তোমাকে। ভালোবেসে যাব তোমাকে। জানি পাব না, তবুও ভালোবাসি। ভালোবাসলে পেতে হবে এমন কোনো কথা নেই। ভালোবাসাটাই আসল। ক’জনে ভালোবাসতে জানে, বলো? ভালোবাসা এক ধরনের নেশা, এক ধরনের প্রেরণা। ভালোবাসা আমার অহংকার। আমি ভালোবাসতে জানি, এটা আমার গর্ব, এটা আমার শক্তি। ক’জনইবা বলতে পারে? মুখ ফুটে বলতে গেলেও হিম্মত লাগে। ভেবো না যাকে নিয়ে সংসার করছি, তার ওপর অন্যায় হবে। নো, নেভার। সে তার জায়গায় রয়েছে, পূর্ণ মর্যাদার সঙ্গেই থাকবে। সংসার সে তো অন্য এক পৃথিবী, অন্যরকম ভালোবাসা। তার প্রকৃতি ভিন্ন, গভীরতা অসীম। সে তার নিজস্ব বিন্দুতে অটল রয়েছে এবং থাকবে। তবুও একদিন যাকে ভালোবেসেছি তাকে তো আর ফেলে দিতে পারব না! ভুলে যেতেও পারব না। সংসারধর্ম পালনের তাগিদে হয়তো ভুলে থাকার ভান করি মাত্র।

সেদিন, প্রায় তেইশ বছর পর, অনেকটা কাকতালীয়ভাবেই তোমার সঙ্গে ফোনে আলাপ হলো। এ কথাগুলোই সেদিন বলতে চেয়েছিলাম কিন্তু পারিনি। বারবার অনুরোধ করেছিলে তোমার সঙ্গে যেন একবার তোমার বাসায় গিয়ে দেখা করি। কিন্তু দুঃখিত। তোমার সঙ্গে দেখা দিলে তো তোমাকেও আমার দেখতে হবে। কিন্তু আমি তো তোমার বর্তমান দেখতে চাই না! আমি তো তোমার বর্তমানকে ভালোবাসিনি! আমি তোমার অতীতকে ভালোবেসেছি। সেই অতীত, যেই অতীত আমাদের মননে, ভাবনায়, আত্মায় অভিন্ন ছিল। এখন তুমি যাই হও না কেন, আমি তোমাকে সেই তেইশ বছর আগে দেখা ফর্সা, পাতলা, লিকলিকে নির্মেদ মানুষটিকে যেমন দেখেছি ঠিক তেমনই হৃদয়ে ধারণ করে দেখে যেতে চাই। জীবনের প্রথম ভালোবাসা নিয়ে আমি কোনো রকম ঝুঁকি নিতে চাই না। ওটা না হয় আমাদের সোনালি সময়ের সোনালি প্রেম হিসেবেই থাকুক। ভালো থেকো।

:: উত্তরা, ঢাকা

পাঠক ফোরাম'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj