মামুনুর রশীদ

শনিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০

একজন প্রখ্যাত বাংলাদেশি নাট্যকার, অভিনেতা ও নাট্য পরিচালক। স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের মঞ্চ আন্দোলনের পথিকৃৎ। তার নাট্যকর্মে প্রখর সমাজ সচেতনতা লক্ষণীয়। শ্রেণী সংগ্রাম তার নাটকের এক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়বস্তু। তিনি টিভির জন্যও অসংখ্য নাটক লিখেছেন এবং অভিনয় করেছেন। বিভিন্ন সামাজিক ইস্যু নিয়ে, শ্রেণি সংগ্রাম, ক্ষুদ্র জাতিসত্তার অধিকার আদায়ের নানা আন্দোলন নিয়ে নাটক রচনা ও নাট্য পরিবেশনা বাংলাদেশের নাট্য জগতে মামুনুর রশীদকে একটা আলাদা স্থান করে দিয়ছে। মামুনুর রশীদের জন্ম ১৯৪৮ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি। ১৯৬৭ সালে তিনি তদানীন্তন পূর্ব পাকিস্তানে টেলিভিশনের জন্য নাটক লিখতে শুরু করেন যার বিষয়বস্তু ছিল মূলত পারিবারিক। সেসময় কমেডি নাটকও তিনি লিখতেন। নাট্যশিল্পের প্রতি তার প্রকৃত ভালোবাসা শুরু হয় টাঙ্গাইলে তার নিজ গ্রামে যাত্রা ও লোকজ সংস্কৃতির সঙ্গে তার নিবিড় পরিচয়ের সূত্র ধরে। তার যাত্রার অভিনয় অভিজ্ঞতা তার নাট্যভাবনাকে খুবই প্রভাবিত করেছিল। ১৯৭১ সালে তিনি বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যোগ দেন এবং জড়িত হন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের সঙ্গে। সেই সময়টাও তার নাট্যচর্চায় প্রতিফলিত হয়েছে বিভিন্ন সময়ে। ১৯৭২ সালে কলকাতা থেকে স্বাধীন বাংলাদেশে ফিরে তিনি তেরি করেন তার আরণ্যক নাট্যদল।

মামুনুর রশীদ নাট্যকার হিসেবে বেশ কয়েকটি নাটক রচনা ও পরিচালনা করেছেন। তার উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হলো : ওরা কদম আলি, ওরা আছে বলেই, ইবলিশ, এখানে নোঙ্গর, গিনিপিগ, জয় জয়ন্তী, সংক্রান্তি, লেবেদেফ

অভিনীত সিনেমা ও নাটক-মনপুরা, তৃতীয় স্ত্রীর ভাগ্যে লেখা, কবর, ওরা আছে বলেই, ওরা কদম আলি। এছাড়াও তিনি অনেক নাটক ও সিনেমাতে অভিনয় করেছেন। মামুনুর রশীদ নাট্যাঙ্গনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখার জন্য বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন। তাকে এ সম্মাননা প্রদান করেছে ‘স্বপ্ন কুঁড়ি’ নামের একটি সাহিত্য-সংস্কৃতিবিষয়ক সংগঠন। নাট্যজন মামুনুর রশীদ সত্যেন সেন সম্মাননা পদকে ভূষিত হয়েছেন।

মুক্তচিন্তা'র আরও সংবাদ
সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

ফোর্স নয়, সেবকও নয়, বন্ধু চাই

নিতাই চন্দ্র রায়

এই যুদ্ধে জয়ী হতে হবে

ড. মো. তাসদিকুর রহমান

আসুন সরকারের নির্দেশনা মানি

মমতাজউদ্দীন পাটোয়ারী

ব্যক্তিগত আক্রমণ গ্রহণযোগ্য নয়

সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী

ঐক্যের বিকল্প কিছু নেই

বিভুরঞ্জন সরকার

আমরা কথা ও কাজে এক হব কবে?

শরদিন্দু ভট্টাচার্য্য টুটুল

করোনায় গণমাধ্যমের দায়িত্বশীলতা

Bhorerkagoj