বাংলাদেশে বিনিয়োগে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র : শিল্পমন্ত্রী

শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : বাংলাদেশে বিনিয়োগকারী দেশগুলোর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র শীর্ষস্থানে রয়েছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। তিনি বলেন, দেশে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে বাণিজ্য ব্যবস্থা উদার করা হয়েছে এবং শুল্কবিহীন বিধিনিষেধ উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে আমেরিকান চেম্বার অব কমার্স (অ্যামচেম) এবং বাংলাদেশে মার্কিন দূতাবাসের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত হয় ২৭তম ইউএস ট্রেড শো। অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন যুক্তরাষ্ট্রের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স জোয়েন ওয়েগার, অ্যামচেমের সভাপতি সৈয়দ এরশাদ আহমেদ, বিডার নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলামসহ অন্যরা।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, শিল্পনীতি ২০১৬-এ দেশের সর্বত্র বিশেষত রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলসমূহে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণের জন্য বিশেষ ইনসেন্টিভ ও সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে। জ্বালানি, অবকাঠামো, যোগাযোগ, কৃষি-ব্যবসা, আইসিটি, শিক্ষা, পর্যটন, রিয়েল এস্টেটসহ অন্যান্য ক্ষেত্রে প্রচুর সুযোগ নিশ্চিত করা হয়েছে। নূরুল মজিদ আরো বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের ৫২তম বৃহৎ বাণিজ্যিক অংশীদার। ২০১৯ সালে মোট বাণিজ্যের পরিমাণ ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বেশি ছিল। যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং বাণিজ্য ঘাটতি ধীরে ধীরে কমে আসছে।

শিল্পমন্ত্রী বলেন, বৈচিত্র্যময় শিল্প খাতে বিদ্যমান বিশাল সম্ভাবনা সন্ধানের জন্য সরকার ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের কাজ চলমান রেখেছে। সেই সঙ্গে রাসায়নিক, প্লাস্টিক, চামড়া, সিরামিক, অটোমোবাইল, খাদ্য এবং অন্যান্য অনেক শিল্প স্থাপনের কাজ চলমান রয়েছে। শিল্পমন্ত্রী দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে দুদেশের ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের মধ্য পারস্পরিক যোগাযোগ আরো বৃদ্ধি করার আহ্বান জানান। ইউএস ট্রেড শো দুদেশের অর্থনৈতিক সম্ভাবনা এবং সুযোগগুলোকে কাজে লাগিয়ে বিদ্যমান বাণিজ্যিক সম্পর্ক স¤প্রসারণে ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

অর্থ-শিল্প-বাণিজ্য'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj