জাহানারাকে ঘিরে ক্রেজ

বৃহস্পতিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নজর কেড়েছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার জাহানারা আলম। যদিও নিজেদের প্রথম ম্যাচে মাঠে তার পারফর্মেন্স ছিল একেবারেই সাদামাটা। তবুও ক্রিকেটপ্রেমীদের চোখ পড়েছে বাংলাদেশি এই পেসারের প্রতি। বিশেষ তার কাজল কালো চোখ নজর কেড়েছে বিশ্ব মিডিয়ার।

যদিও চোখের জাদু ছড়ানোর বাইরে জাহানারা ভারতের বিপক্ষে বিশেষ কিছু করতে পারেননি। বল হাতে প্রচুর রান দিয়েছেন। তার ৪ ওভার বোলিংয়ে ভারতের সংগ্রহ ছিল ৩৩ রান। একই সঙ্গে ব্যাটিংয়ে মাত্র ১০ রান করে আউট হন তিনি। চলমান নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে ১৮ রানে হারিয়েছে ভারত। শেফালি ভার্মার শক্তিশালী ইনিংস এবং পুনম যাদবের স্পিন জাদুতেই দুর্দান্ত জয় পায় টিম ইন্ডিয়া। কিন্তু ম্যাচ উইনারদের ছাপিয়ে আলোচনায় বাংলাদেশের জাহানারা আলম। খেলা চলাকালীন ক্রিকেটপ্রেমীদের বারবার চোখ গেছে তার দিকে। সেই রহস্যও সামনে এসেছে। বরাবরের মতো এ ম্যাচেও চোখে কাজল দেন জাহানারা। কালো নয়না হরিণী হয়েই ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং করেন তিনি। টুইটারে সবাই জাহানারা আলমের চোখের জাদুতে মুগ্ধতার কথা জানাচ্ছেন নানাভাবে।

নজরকাড়া পারফরম করতে না পারলেও জাহানারার বেশভূষার প্রশংসা করেছেন অনেকে। মাঠের পারফরমেন্স সাদামাটা হলেও ক্রিকেট দুনিয়ায় চোখের সাজে রঙিন করে তোলা জাহানারায় মুগ্ধ অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক ও ভাষ্যকার মেলিন্ডা ফেরাল। টুইটারে তিনি লিখেছেন, আমি শুধু একটা কথাই জানতে চাই, কোন আইলাইনারের জাদুতে জাহানারা সবার চোখের মণি হয়ে উঠলেন? আমিও সেই আইলাইনার ব্যবহার করব!

কুপ্তান নামে একজন টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, যাই বলুন, ম্যাচের ক্রাশ ছিলেন জাহানারাই। সর্বোপরি সবাই জাহানারার চোখের জাদুতে মুগ্ধতার কথা জানাচ্ছেন নানাভাবে।

জাহানারার অস্তিত্বে মিশে আছে ক্রিকেট। ২৬ নভেম্বর ২০১১ সালে ঘরের মাঠ সাভারে আয়ারল্যান্ড নারী দলের বিপক্ষে ওয়ানডেতে এবং ২০১২ সালের ২৮ আগস্ট ডাবলিনে ওই আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেই টি-টোয়েন্টিতে অভিষেক হয় খুলনা জেলার মেয়ে জাহানারার। ডানহাতি মিডিয়াম ফাস্ট বোলার জাহানারা দলের প্রয়োজনে ব্যাট হাতেও আলো ছড়ান তিনি। দেশের জার্সিতে অভিষেক হওয়ার পর এখন পর্যন্ত ৩৭ ওডিআই এবং ৬৯টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন তিনি। প্রথম কোনো বাংলাদেশি নারী ক্রিকেটার হিসেবে ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগেও খেলেছেন জাহানারা আলম। ভারতের নারী টি-টোয়েন্টি লিগ তথা নারীদের আইপিএলের দল ভেলেসিটির হয়ে খেলেন তিনি। এর আগে বাংলাদেশের দুজন ক্রিকেটার অস্ট্রেলিয়ার বিগ ব্যাশে ডাক পেলেও জাহানারাই প্রথম ক্রিকেটার যিনি মাঠে নামার সুযোগ পান। তার খেলা দুটোর মধ্যে শেষ ম্যাচে দল হারলেও প্রশংসা কুড়িয়েছেন জাহানারা আলম।

পাশাপাশি অভিনয়েও দেখা গেছে তাকে। ‘লাইফ ইজ বিউটিফুল’ নাটকের মাধ্যমে ছোট পর্দায় পা রাখেন সাবেক এই বাংলাদেশি অধিনায়ক। কাজ করেছেন একাধিক বিজ্ঞাপন চিত্রেও।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj