ধর্মগুরুর বিতর্কিত মন্তব্যের প্রতিবাদে ‘পিরিয়ড ফিস্ট’

বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাগজ ডেস্ক : নারীদের পিরিয়ড বা ঋতুচক্র নিয়ে সমাজের বিভিন্ন মহলে ভ্রান্ত ধারণার অন্ত নেই। ভারতে কিছুদিন আগে এক ধর্মগুরু এক বিতর্কিত মন্তব্য করে বলেন, পিরিয়ড চলাকালে স্বামীর জন্য রান্না করলে পরজন্মে কুকুর হয়ে জন্মাতে হবে! এসব কুসংস্কারের প্রতিবাদে, ঋতুচক্র যে সাধারণই একটি স্বাভাবিক জৈবিক প্রক্রিয়া, সে বিষয়টি প্রচারের জন্য অভিনব উদ্যোগ নিল দিল্লির একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। তারা উদযাপন করলেন ‘পিরিয়ড ফিস্ট’। সেই ফিস্টে ঋতুকালীন অবস্থাতেই ২৮ জন নারী প্রায় ৫০০ জন লোকের জন্য রান্না করলেন। আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন দিল্লির ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী মনীশ সিসৌদিয়া। অনুষ্ঠানের ট্যাগলাইন ছিল, ঋতুকালীন নারী হিসেবে গর্বিত।

এর আগে ছাত্রীরা ঋতুমতী কিনা জানতে গুজরাটের ভুজের একটি কলেজের হস্টেল কর্তৃপক্ষ অন্তর্বাস খুলে দেখার ঘটনায় উত্তাল হয়েছিল সারাদেশ। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এক ধর্মগুরু পিরিয়ড নিয়ে বিতর্কিত ওই মন্তব্য করেন। সেই ধর্মগুরু বলেন, ঋতুকালীন অবস্থায় যে সব নারী স্বামীর জন্য রান্না করেন, তারা পরজন্মে কুকুর হয়ে জন্মাবেন! এরপরই ওই মন্তব্যের প্রতিবাদে মুখর হয়ে উঠেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ।

ওই বক্তব্যের প্রতিবাদ করেই এই পিরিয়ড ফিস্টের আয়োজন করা হয়েছে জানিয়ে ‘সাচ্চি সহেলি’ সংস্থার প্রধান সুরভি সিংহ বলেন, ওই কুরুচিকর মন্তব্যের জবাব দিতেই আমরা এ আয়োজন করেছি। ঋতুকালীন মেয়েদের রান্না খেয়েও যে পরিবর্তন হয় না, তা দেখাতেই এ আয়োজন।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj