জানা অজানা : উশু

মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মার্শাল আর্ট আর জিমন্যাস্টিসেক্সর সংমিশ্রণে দারুণ সম্ভাবনাময় খেলা উশু। বর্তমান বিশ্বে ধীরে ধীরে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে উশু। বাংলাদেশে এ খেলা খুব জনপ্রিয় না হলে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এ দেশের ছেলেমেয়েরা দিনকে দিন উশুর দিকে ঝুঁকছে। একসময় কুংফু মানেই চীনা এ ধারণা ছিল অনেকের মধ্যে। ঐতিহ্যবাহী চাইনিজ মার্শাল আর্ট থেকে উদ্ভূত ‘উশু’ চায়নার একটি অতি পরিচিত খেলা। এ খেলায় বিভিন্ন মার্শাল আর্টকে প্রদর্শন করা হয়। যদিও মার্শাল আর্টের পুরনো নিয়মগুলোকে অনুশীলনের মাধ্যমে আবার ফিরিয়ে আনতে ১৯২৮ সালে চীনের নানকিংয়ে সেন্ট্রাল উশু ইনস্টিটিউট উদ্বোধন করা হয়।

চাইনিজ ভাষায় ‘উ’ শব্দের অর্থ মানুষের আত্মরক্ষা এবং ‘শু’ শব্দের অর্থ কৌশল। উশু শব্দের অর্থ হচ্ছে মানুষের আত্মরক্ষার কৌশল। খুব কম সময়ের মধ্যেই উশু একটি আন্তর্জাতিক খেলা হিসেবে স্বীকৃতি পায়। আর এর পেছনে সহায়তা করে আন্তর্জাতিক উশু ফেডারেশন। প্রতি দুই বছর পর পর এই ফেডারেশনের সহায়তায় বিশ্ব উশু চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ অনুষ্ঠিত হয় ১৯৯১ সালে। সেইসঙ্গে প্রথম বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হন ইয়ান ওয়েন কুয়িং। উশু প্রতিযোগিতা মূলত দুটি নিয়মে খেলা হয়। একটি হচ্ছে তাওলু এবং অপরটি সান্দা।

দারুণ সম্ভবনাময় খেলা উশু। আত্মরক্ষার সঙ্গে বিনোদন এই দুইয়ের সংমিশ্রণ, উশু খেলাকে করেছে জনপ্রিয়। সেইসঙ্গে বৈশ্বিক প্রতিযোগিতাগুলোতেও রয়েছে পদক জয়ের সম্ভাবনা। ২০০৭ সালে বাংলাদেশে উশু এসেসিয়েশনের যাত্রা শুরু। এরপর ২০১০ সালে এসএ গেমসের ১১তম আসরে প্রথমবারের মতো অংশ নিয়েই বাজিমাত করেন দেশি উশুকাররা। ৫২ কেজি ওজন শ্রেণিতে দুটি স্বর্ণ জিতেছিলেন মেজবাহ উদ্দিন ও ফাহমিদা ইয়াসমিন। এছাড়া ওই আসরে দুটি ব্রোঞ্জও জিতেছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা। আর ভারতে অনুষ্ঠিত পরের এসএ গেমসের উশু ডিসিপ্লিনে ৫টি ব্রোঞ্জ জিতেছিল বাংলাদেশ।

১৯৮১ সালে উশুকে সর্বপ্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে ওয়ার্ল্ড উশু চ্যাম্পিয়নশিপের ইভেন্টে যোগ করা হয়। ১৯৯০ সালে এশিয়ান গেমসে যোগ করা হয় উশু প্রতিযোগিতাকে। এশিয়ান গেমসে প্রথমবার উশুর আয়োজন করা হয় চীনের বেইজিংয়ে। এ আয়োজনে পুরুষ ও মেয়েদের তিনটি করে ছয়টি ইভেন্ট ছিল। ১৯৯০ সালের উশু আয়োজনে সব স্বর্ণ পদকই ছিল চীনের দখলে। প্রতি চার বছর পর পর এশিয়ান গেমসের আয়োজন করা হয়। তবে এ পর্যন্ত উশু প্রতিযোগিতায় সবচেয়ে বেশি স্বর্ণ পদক পেয়ে এসেছে চীন। বিশ্বের সেরা প্রতিযোগিতা অলিম্পিক। তবে এই অলিম্পিকেই উশুকে এখনো যোগ করা হয়নি।

::খেলা ডেস্ক

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj