নর্দান ইউনিভার্সিটির ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০

‘তথ্য ও প্রযুক্তিভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণ ও ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে দক্ষ ও যোগ্য নাগরিক তৈরি পাশাপাশি মানবিক গুণাবলীরও বিকাশ ঘটাতে হতে হবে’। নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের ৫ম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে এনইউবি স্থায়ী ক্যাম্পাস আশকোনা, দক্ষিণখানে সভাপতির বক্তৃতায় শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের জন্য উপযোগী জ্ঞান, কর্মজগতের চাহিদা অনুযায়ী দক্ষতা এবং সাফল্যের জন্য প্রয়োজনীয় যথাযথ মনোভাবের সুসমন্বয়ে শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলতে হবে যোগ্য মানবসম্পদ হিসাবে। শিক্ষার্থীদের কল্যাণমুখী ও প্রায়োগিক গবেষণা করতে উৎসাহী করতে হবে যেন দেশ গঠনে তারা ভূমিকা পালন করতে পারে’। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে এক্ষেত্রে যথাযথ ভূমিকা পালন করতে হবে এবং তিনি শিক্ষার্থীদের চাকরি পেছনে না ছুটে উদ্যোক্তা হাওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। রাষ্ট্রপতি ও নর্দান ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের আচার্য মো. আবদুল হামিদের পক্ষে তার প্রতিনিধি হিসেবে মন্ত্রী সমাবর্তন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন টেন মিনিট স্কুলের ফাউন্ডার এবং সিইও আয়মান সাদিক এবং পাঠাও লিমিটেডের সিইও হুসাইন এম ইলিয়াস। আয়মান সাদিক বলেন, ‘ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ও সুন্দর জাতীয় গঠনে এনইউবির শিক্ষার্থীদের অনেক বড় ভূমিকা রাখতে হবে।’ শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে হুসাইন এম ইলিয়াস বলেন, ‘প্রযুক্তিগতভাবে পুরো বিশ্ব খুব দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে, প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে আমাদেরও সামনে এগিয়ে যেতে হবে। স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ালেখার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলে চলবে না, দ্রুত এগিয়ে যেতে হলে নিয়মিত জ্ঞান অর্জন করতে হবে’।

:: ক্যাম্পাস ডেস্ক

ক্যাম্পাস'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj