কেমন বেতন দেয় পিএসজি

মঙ্গলবার, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ফ্রান্সের সর্বোচ্চ ফুটবল প্রতিযোগিতা লিগ ওয়ানের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন প্যারিস সেইন্ট জার্মেইর (পিএসজি)। শুধু ফ্রান্সেই নয় পুরো বিশ্বের অন্যতম দামি ফুটবল ক্লাব হলো পিএসজি। ক্লাবটিতে বর্তমানে খেলছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমার ও ফরাসি বিশ্বকাপজয়ী তারকা কাইলান এমবাপ্পে। বিশ্বের অন্যতম তেলসমৃদ্ধ ধনী দেশ কাতারের ‘কাতার স্পোর্টস ইনভেস্টমেন্ট’ কোম্পানি ক্লাবটির মালিক। ২০১১ সালে পিএসজির মালিকানা কিনে নেয় তারা। ধনী দেশের মালিকানাধীন ক্লাবটি তাদের খেলোয়াড়দের মাসিক বেতন দেয় কোটি কোটি টাকা। পিএসজি থেকে সবচেয়ে বেশি বেতন পান নেইমার। তাকে প্রতি মাসে পিএসজি ২.৬ মিলিয়ন ইউরো বেতন দেয়। বিশ্বকাপজয়ী এমবাপ্পে পান নেইমারের অর্ধেক। তিনি প্রতি মাসে পান প্রায় ১.৬ মিলিয়ন ইউরো। তৃতীয় সর্বোচ্চ ১.৩ মিলিয়ন পান থিয়াগো সিলভা। চতুর্থ সর্বোচ্চ বেতন ১.১ মিলিয়ন পান এডিসন কাভানি। তাছাড়া প্রতি মাসে ১ মিলিয়ন ইউরো করে পান মারকুইনহোস ও মার্কো ভেরাত্তি। দুদিন আগে স্প্যানিশ সংবাদ মাধ্যম লিগ ওয়ানের ধনী ১১ জন খেলোয়াড়ের তালিকা প্রকাশ করে যেখানে দেখা ৬ জনই রয়েছেন পিএসজির।

পিএসজি তার টাকার ঝনঝনানিটি দেখায় ২০১৭ সালে। সে বছর তারা স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনার কাছ থেকে কিনে নেয় নেইমারকে। সেই সময় তারা ২০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে নেইমারকে দলে ভিড়িয়েছিল। ফুটবলের ইতিহাসে এখন পর্যন্ত কোনো ক্লাব ২০০ মিলিয়নের ধারে কাছেও যায়নি। সেখানে ২০১৭ সালে এটি করে দেখিয়েছিল তারা।

তবে ফরাসি ফুটবলে আধিপত্য দেখালেও এখন পর্যন্ত ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জিততে পারেনি তারা। আর এই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা জেতার জন্যই মূলত নেইমারকে দলে এনেছিল তারা। কিন্তু ২ বছরও সেটি এখনো নেইমার ক্লাবটিকে কাক্সিক্ষত শিরোপা এনে দিতে পারেন নি। তবে এমন লোভনীয় বেতন পেলেও নেইমার এখন পিএসজি ছেড়ে আবার বার্সেলোনায় ফিরে আসতে চাইছেন।

তাকে এত দামে কিনে এখন বিপদেই পড়েছে ক্লাবটি। সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় নেইমারের সঙ্গে এখন তাদের দ্ব›দ্ব লেগে আছে। তাছাড়া তাদের দ্বিতীয় দামি খেলোয়াড় এমবাপ্পেও ক্লাব ছেড়ে অন্য কোথাও চলে যেতে চাচ্ছেন। বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায় তিনি এখন স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেয়ার জন্য উদগ্রীব হয়ে আছেন। তবে নেইমারের ব্যাপারে কিছুটা নমনীয় হলেও এমবাপ্পেকে কোনোভাবেই ছাড়তে রাজি না তারা।

:: মোহাম্মদ তানভীরুল ইসলাম

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj