বিশ্বের বিস্ময়কর সুইমিং পুল

শনিবার, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাগজ ডেস্ক : আনন্দ হৈহুল্লোড় বা সারাদিনের ক্লান্তি দূর করার অন্যতম পথ হলো সুইমিং পুল। আর সেই পুল যদি হয় এ রকম বিস্ময়ের! বিশ্বজুড়ে এমনই কতগুলো পুলের হদিস রইল, যা দেখে চোখ জুড়িয়ে যাবে-

রেঠি রাহ : সাদা বালি, প্রবাল দিয়ে তৈরি প্রাকৃতিক পুল এটি। প্রবালের প্রাচীর সমুদ্র থেকে আলাদা করে দিয়েছে এই পুলকে। বর্তমানে মালদ্বীপের রেঠি রাহ হোটেলের মালিকানায় রয়েছে এই পুলটি

ইনফিনিটি পুল : সিঙ্গাপুরের মেরিনা বেøতে একটি বিলাসবহুল হোটেলের ৫৭ তলায় রয়েছে এই পুলটি। মাথার ওপরে আকাশের নীল রং পুলের জলটাকেও নীলাভ করে তুলেছে। পুল থেকে মেরিনা বেøর সূর্যাস্ত দেখা যায়

উবাদ হোটেল : মেরিনা বে থেকে যদি সূর্যাস্ত দেখে মন না ভরে, তাহলে চলে আসতে পারেন উবাদ হোটেলের। ইন্দোনেশিয়ার বালিতে অবস্থিত এই হোটেলের পুল বিশ্বের অন্যতম মনে গেঁথে যাওয়া পুল। বৃষ্টি অরণ্যের ওপরে এই হোটেলের দোতলা পুল পাবেন আপনি

গোল্ড এনার্জি পুল : ঠিক যেন চোখ ঝলসানো ব্যাপার। পুলের জলের দিকে তাকালে ঝলসে উঠবে আপনার চোখ। সোনার মতো ঝকঝকে তার জল। তিব্বতের লাসা শহরে সেন্ট রেগিস হোটেলে রয়েছে এই পুলটি। পুলটির নিচে ১৪ ক্যারাটের সোনার টাইলস বিছানো রয়েছে। তাই জলেও তার প্রতিফলন হয়েছে

ওবেরয় উদয়ভিলা : রাজস্থানের উদয়পুরে রয়েছে এই রাজকীয় ভিলা। ভিলার বাইরের দিকে রয়েছে বিশালাকার উন্মুক্ত পুল। পুলে সাঁতার কাটতে কাটতেই উপভোগ করতে পারবেন চারপাশের প্রকৃতি

ভায়োলিন সুইমিং পুল : মিউজিশিয়ানদের অন্যতম পছন্দের এই পুলটি। তার একমাত্র কারণ আকার। ঠিক একটা আস্ত ভায়োলিনের মধ্যে ডুব দেয়া যাবে। নিউইয়র্কের এই সুইমিং পুলটি ব্যক্তিগত। এক ব্যাংকার এটি বানিয়েছেন

কেভ পুল : গ্রিসের স্যান্টোরিনি ভীষণই জনপ্রিয় একটা সামার ডেস্টিনেশন। আর এই সামার ডেস্টিনেশনের সবচেয়ে আকর্ষণীয় হলো কেভ পুল। এটা আসলে পাহাড়ের নিচে বা বলতে পারেন গুহার মধ্যে তৈরি হওয়া প্রাকৃতিক সুইমিং পুল। বাইরের তাপমাত্রা যতই বাড়ুক না কেন, এই পুলের জল সব সময়ই হিম-শীতল

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj