দুই ম্যাজিস্ট্রেটকে হাইকোর্টে তলব

শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০

কাগজ প্রতিবেদক : দীর্ঘদিন অতিবাহিত হওয়ার পরও ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদেশের কপি না দেয়ার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ (নকল শাখা) মাসুকাতে রাব্বিকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি তাদের সশরীরে হাজির হতে বলা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটকারীর পক্ষে ছিলেন এডভোকেট মো. আছরারুল হক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার। আদালতের আদেশের পর এডভোকেট আছরারুল হক বলেন, রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জেসমিন আক্তার আদেশের সার্টিফায়েড কপি না দেয়ার বিষয়ে যে ব্যাখ্যা দিয়েছেন তাতে আদালত সন্তুষ্ট হননি। তাই ফের তাকে তলব করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, রাজউকের আইনজীবী আদালতকে জানান, আদেশের সার্টিফায়েড কপির জন্য জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের ফরওয়ার্ডিং প্রয়োজন হয়। সেই ফরওয়ার্ডিং এখনো আসেনি। এ কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালতের আদেশের সার্টিফায়েড কপি দেয়ার প্রক্রিয়া জানতে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের ভারপ্রাপ্ত ইনচার্জ মাসুকাতে রাব্বিকে তলব করেছেন।

এর আগে প্রথম গত বছরের ১৭ ডিসেম্বর জেসমিন আক্তারকে তলব করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে প্রকল্প উপদেষ্টা লিমিটেড নামের প্রতিষ্ঠানকে করা এক লাখ টাকার জরিমানার আদেশের ওপর স্থিতিবস্থা বজায় রাখার আদেশ দেয়া হয়েছে। প্রকল্প উপদেষ্টা লিমিটেডের কারিগরি পরিচালক মনিরুজ্জামানের করা এক রিট আবেদনে এ আদেশ দেয়া হয়।

গত বছরের ১৪ নভেম্বর রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত প্রকল্প উপদেষ্টা লিমিটেড নামের একটি কনসাল্টিং, আর্কিটেক্ট ও ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ টাকা জরিমানা করে। ওইদিনই জরিমানার টাকা আদায় করে নেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। এরপর এই আদেশের কপি চেয়ে গত বছরের ৪ ও ৫ ডিসেম্বর আবেদন করে প্রতিষ্ঠানটির সংশ্লিষ্টরা। কিন্তু আজ পর্যন্ত আদেশের কপি সরবরাহ করা হয়নি। এ কারণে ওই আদেশের বিরুদ্ধে আপিলও করতে পারছেন না তারা। এ অবস্থায় আদেশের কপি চেয়ে হাইকোর্টে রিট করেন তারা।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj