ফিরোজা সামাদ

শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি ২০২০

বাঙলার পৌষালি শীত

পৌষালি শীতের আলতো ছোঁয়ায় শিহরিত এই মন,

আঁকাবাঁকা ওই মেঠো পথে চলে যায় অনুক্ষণ!!

বন বাদাড় আর মাঠ পেরিয়ে দূরান্তে যায় চলে,

বাংলা মায়ের মুখ দেখবি কি? আয় না ছুটে চলে!!

গাঁয়ের বধূ কলসি কাঁখে শীতে নদীর ধারে যায়,

কমলা রঙের মিষ্টি রোদ চুপিসারে উঁকি দেয়!!

খেজুর রস হাঁড়ি কাঁধে করে গাছিরা নেয় ভরে,

মা-বোন-বধূ পায়েস রাঁধে পৌষালির রান্নাঘরে!!

নলেন গুড়ের পিঠে পুলি আর রান্নার ছড়াছড়ি,

গাঁয়ে গাঁয়ে খুশির আবেশ সুখ বয়ে যায় ভারি !!

সবুজ পাড়ে হলুদ শাড়ির কতো নিবিড় আলিঙ্গন,

মৌমাছি আর প্রজাপতির আহা মধুর গুঞ্জরণ !!

শান বাঁধানো পুকুর জলে মধুর শীতের ডুব সাঁতার,

রোদ পোহানো আমেজে মন আনন্দে একাকার!!

রোদ শুকায় জলে ভেজা চুল বাড়ির আঙিনাতে,

নকশি কাঁথা উঠোনে সেলাই করে বঁধুয়া নিপুণ হাতে !!

রাত গভীরে শেয়াল হাঁকে উড়ে সেদ্ধ ধানের ধোঁয়া,

সবকিছুতেই লেগে থাকে আমার মায়ের ছোঁয়া !!

লেপ আর কাঁথা গায়ে জড়িয়ে রাতের সাথে বাস,

বাঙলা মায়ের বুকের কোণে আমার আদি বাস !!

সাময়িকী'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj