ট্রেন্ড : বডি ফিট জ্যাকেটে…

রবিবার, ১২ জানুয়ারি ২০২০

সুমাইয়া আহম্মেদ

তাপমাত্রা যেহেতু নি¤œগামী, নাগরিকদের পোশাকে তার একটা প্রতিফলন থাকবেই। ভোরের অফিস যাত্রা থেকে সন্ধ্যার সামাজিকতায় হাল সময়ে তরুণরা গায়ে চড়াচ্ছেন ক্যাজুয়াল জ্যাকেট। সামর্থ্যবানদের কাছে শীত ফ্যাশনেবল- এ সত্য প্রমাণিত শৌখিন শীত পোশাকের আধিক্যে।

ইচ্ছেমতো ফ্যাশন, এটাই যেন শীতের এক মজা। বেড়াতে গিয়েও ফুরফুরে থাকা যায়। হোক সে জঙ্গলে তাঁবুবাস বা রাতের বারবিকিউ পার্টিতে স্মার্ট থাকতে পারেন স্মার্টফোনের ক্যামেরায়। ভেতরে রঙিন টি-শার্ট পরে তার ওপর জ্যাকেট পরতে পারেন। সামনের অংশে বোতাম বা চেইন যেটাই থাক, পুরো খুলে না রেখে অর্ধেক আটকে দিন। এ ছাড়াও কৃত্রিম চামড়া বা প্যারাসুট কাপড়ের জ্যাকেট চলছে এবার। বম্বার জ্যাকেট হিসেবে পরিচিতি বেশি। একরঙা বডি ফিট জ্যাকেটের সামনের দিকে চেইন আর চিকন কলার। শীত বেশি মনে হলে মাথা ঢেকে নিতে পারেন টুপি দিয়ে আর হাত চালান করে দিন প্যান্ট বা জ্যাকেটের পকেটে। খাটো ও লম্বা দুই ধরনের উলের টুপিই পরতে দেখা যাচ্ছে।

বলা যায়, ছেলেদের শীত পোশাক হিসেবে শীর্ষে আছে জ্যাকেট। পাশাপাশি আছে নানা রকমের হুডি ও উলেন সোয়েটার। চামড়া, রেক্সিন, সুতি কাপড় দিয়ে তৈরি এসব সোয়েটার ও জ্যাকেট। চামড়ায় তৈরি এসব লেদার জ্যাকেট পাতলা ও মোটা দুই ধরনের আছে। যা পিওর সিনথেটিক এবং মিক্স লেদার নামে পরিচিত। লেদারের জ্যাকেটের প্যাটার্নেও রয়েছে ভিন্নতা। যেমন- ভেলেন্ট লেদার রাইডিং জ্যাকেট, ইলাস্টিক, বোম্বার স্টাইল, মোটরবাইক, পুলিশ জ্যাকেট, পাঙ্ক, রকস্টার জ্যাকেট ইত্যাদি। লেদার জ্যাকেটের পাশাপাশি রেকসিনের জ্যাকেটও আছে। দাম কম হলেও খুব টেকসই না।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj