রুপালি মায়া

শুক্রবার, ১০ জানুয়ারি ২০২০

তাহমিনা শিল্পী

ফুল তোলা নকশি চাদরটা আজ আমি পরিয়ে দিলাম বৃষ্টির গায়ে।

গুটিগুটি পায়ে বৃষ্টি এগিয়ে যায় কুয়াশার পাঁচিল দেয়া-

আমাদের ভালোবাসার বাড়ির দিকে।

যেতে যেতে ক্রমশ অচেনা হয়ে উঠছে চেনা পথটা!

মনে পড়ে আমাদের মেহেদিরঙা বিকেলটা,

খিলখিল করে হেসে উঠেই ;

হঠাৎ মিলিয়ে গিয়েছিল আটপৌরে নিয়মের বেড়াজালে।

শুধু মনে পড়ে না যেতে যেতে কখন তুমি রেখে গেলে,

কিছু রুপালি মায়া।

এখন তোমার মন অন্য সুরে গায়!

তুমি অন্য কাউকে শোনাও রূপকথার গল্প।

তবু ঘুম ভেঙে আমার অলস ক্লান্ত মনে,

কুসুম কুসুম স্বপ্ন জেগে ওঠে।

তোমার হাত ছুঁয়ে আড়মোড়া ভাঙতে চায়,

এখানকার নরম ভোর।

সত্যিই আমি বড় সেকেলে।

তোমার শহরের সাথে আমার গ্রামের দ্ব›দ্বযুদ্ধে-

আমি ভীষণ আড়ম্বরতাহীন একরোখা আর অচল।

তবু কেন এত মায়া!

চুলে গোঁজা একটা রুপোর কাঁটা হারিয়ে গেলেও তো কষ্ট হয়!

আমার তো তুমি-ই হারিয়ে গেলে।

রইলো কি আর বাকি কিছু?

সাময়িকী'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj