টুকি-টাকি

শনিবার, ৪ জানুয়ারি ২০২০

গরুর বিয়ে দেবে মধ্যপ্রদেশ সরকার

কাগজ ডেস্ক : এবার ‘গোকন্যা’দের বিয়ে দেবে ভারতের মধ্যপ্রদেশ সরকার। আর তার জন্য বিবাহযোগ্য ষাঁড়ের খোঁজ করা শুরু হয়ে গেছে। দেশটির মধ্যপ্রদেশের অ্যানিমাল হাসব্যানড্রি দপ্তর এরই মধ্যে ১৬টি প্রজাতির দুশটি ষাঁড়েরও খোঁজ পেয়ে গেছে। যাদের সঙ্গে বিয়ে দেয়া হবে দেশি গরুর। এদের সঙ্গে ‘গোকন্যা’দের বিয়ে দেয়া হবে। কৃষকরাই তাদের পোষ্য গরুর জন্য বিবাহযোগ্য পাত্র অর্থাৎ ষাঁড় খুঁজে নিতে পারবেন। শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি। বিবাহযোগ্য ষাঁড়ের তালিকা সাজিয়ে রাখার জন্য একটি ওয়েবসাইটও খোলা হয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রের খবর, যে ষাঁড়দের বেছে নেয়া হয়েছে, তাদের ছবিসহ সব তথ্য অর্থাৎ তাদের কোনো জিনগত বিকৃতি আছে কি না, সবকিছু। এমনকি সেই ষাঁড়েদের ‘সিমেন’ও সংগ্রহ করা হয়েছে। সেই তথ্য দেখেই কৃষকরা ঠিক করবেন, তাদের পোষ্য গরুর জন্য কোন পাত্র উপযুক্ত। বেশিরভাগ প্রজাতির ষাঁড়ই নাকি বিদেশি।

লটারি জিতেও ঘুমাতে পারছেন না বৃদ্ধ

কাগজ ডেস্ক : সংসারে অভাব-অনটন ছিল। তা থেকে মুক্তি পেতে মাঝে মধ্যেই লটারি কাটতেন। তাই বলে রাতারাতি প্রথম পুরস্কার জিতে কোটিপতি হবেন এমনটা ভাবেননি পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমান জেলার কালনা মহকুমার বাসিন্দা ইন্দ্রনারায়ণ সেন। তবে ঘটনা হলো এক কোটি রুপির পুরস্কার জিতে ঘুম হারাম হয়েছে বৃদ্ধের। কলকাতার দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকার প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, লটারি জেতার পর অর্থ আর নিজের জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে ওই বৃদ্ধ পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন। অন্যদিকে কয়েক দিনের ব্যবধানে কালনা এলাকায় দুজন এক কোটি রুপির পুরস্কার জেতায় লটারি ক্রেতা-বিক্রেতাদের মধ্যে আগ্রহ এখন চরমে। স্থানীয় বাসিন্দা প্রবীণ ইন্দ্রনারায়ণ বলেন, তার ছেলের ছোট একটি স্বর্ণের দোকান রয়েছে।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj