হেমায়েতের চমক বিশ^ ক্যারমে

সোমবার, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : ইন্টারন্যাশনাল ক্যারম কাপ টুর্নামেন্টের অষ্টম আসরে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে সাবেক বিশ^ চ্যাম্পিয়ন নিশান্ত ফার্নান্দোকে হারিয়ে বিশ^ ক্যারমে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে বাংলাদেশের হেমায়েত মোল্লা। হেমায়েতের এ জয়ে জাতীয় ক্যারমদল তৃতীয় স্থান অর্জন করেছে। এর আগে ভারতের পুনেতে ১৬টি দেশের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় আইসিএফ ক্যারম প্রতিযোগিতা। আসরে তৃতীয় স্থানে থাকা মালদ্বীপকে সরিয়ে বাংলাদেশ এ জায়গা দখল করে নেয়। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ র‌্যাঙ্কিংয়ে তৃতীয় অবস্থানেই ছিল। ২০১৬ ও ২০১৮ সালের টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ না করায় তৃতীয় স্থান হাতছাড়া হয় বাংলাদেশের। চলতি আসরে তা আবারো পুনরুদ্ধার হলো।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ ক্যারম ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আহমেদ লিয়ন বলেন, এমন পারফরমেন্সে আমি বেশ খুশি। এমন অর্জনে আমাদের আত্মবিশ^াস আরো বেড়েছে। ভবিষ্যতে এ আত্মবিশ^াস ভালো কাজে লাগবে। সেমিফাইনালে ভারতের বিপক্ষে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে হেরে গেলেও ভালো খেলেছে তারা। হেমায়েত মোল্লার পঞ্চম স্থান অর্জন বাংলাদেশের জন্য বড় পাওয়া। আশা করি, এ ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।

উল্লেখ্য, ১৯৯০ সালে বাংলাদেশে ক্যারম ফেডারেশন গঠিত হয়। খেলাটি ব্যাপক প্রচলিত এবং জনপ্রিয় হওয়া সত্ত্বেও সে অনুযায়ী আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সফলতা লাভ করেনি। একযুগ আগে ক্যারম ফেডারেশনের স্বীকৃতি মেলে বিশ^মহলে।

স্বীকৃতির পর সার্ক-ক্যারম চ্যাম্পিয়নশিপ, ক্যারম ওয়ার্ল্ড কাপ, আইসিএফ কাপে পুরস্কার জয়ের পাশাপাশি বিশ^ র‌্যাঙ্কিংয়েও খেলোয়াড়রা জায়গা করে নিয়েছে। কিন্তু এই ফেডারেশন ও এর অর্জন সম্পর্কে জানে না সাধারণ মানুষ। মাত্র ৩০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত অনুদান এবং ভারতের দেয়া কয়েকটি বোর্ড দিয়ে, ক্যারম ফেডারেশনের যাত্রা শুরু। যাত্রা শুরুর পর পরই ১৯৯৯ সালে মালেতে অনুষ্ঠিত নাদী নাইট ক্যারম চ্যাম্পিয়নশিপে চ্যাম্পিয়ন হয় বাংলাদেশ।

পরের বছর নয়াদিল্লিতে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ওয়ার্ল্ড ক্যারম চ্যাম্পিয়নশিপে পুরুষ দলগত ও দ্বৈতে ৩য় ও ৪র্থ স্থানের পাশাপাশি বিশ^ র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ৩ বার ৭ম, ৯ম, ১০ম স্থান অর্জন করে।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj