বিপিএলের টাইটেল স্পন্সর আকাশ

রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের টাইটেল স্পন্সর হিসেবে থাকছে স্যাটেলাইট সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানি আকাশ ডিটিএইচ। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন আকাশের টাইটেল স্পন্সরশিপের স্বত্ব পাওয়ার তথ্য জানান। আকাশ ডিটিএইচ বাংলাদেশের প্রথম ডিরেক্ট টু হোম স্যাটেলাইট সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানি।

আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিপিএলের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। তার আগেরদিন টাইটেল স্পন্সর ঠিক করল বিসিবি। মিরপুর স্টেডিয়ামে আজ উদ্বোধন শেষে ১১ তারিখ থেকে এই মিরপুরেই শুরু হবে মাঠের লড়াই। প্রথম দিন হবে দুটি ম্যাচ। উদ্বোধনী ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও সিলেট থান্ডার্স ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে। দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামবে রংপুর রেঞ্জার্স ও কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স। ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৬টা ৩০ মিনিটে। তবে উদ্বোধনী ম্যাচটিতে চট্টগ্রামের হয়ে নাও নামতে পারেন জাতীয় দলের নিয়মিত মুখ মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। গত মাসে ভারতের বিপক্ষে সিরিজ খেলার সময় ইনজুরিতে পড়েন তিনি। সেই ইনজুরি থেকে এখনো সেরে উঠতে পারেননি মাহমুদউল্লাহ। গতকাল পর্যন্ত তিনি ব্যাটিং বা বোলিং অনুশীলন করেননি। তার বদলে রানিং করে সময় কাটিয়েছেন তিনি। তবে হাতে যেহেতু আরো দুদিন সময় আছে তাতে করে শেষ পর্যন্ত তিনি নামতেও পারেন।

এদিকে এবারের বিপিএলকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পাইপলাইন হিসেবে দেখছেন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। তিনি জানিয়েছেন বিপিএলে যে প্লেয়ার ভালো করবে তাকে আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য বিবেচনা করবেন তারা। গতকাল মিরপুরে সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি। নান্নু বলেন, ‘এই বিপিএলটা আমাদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। সামনে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আছে। আসরে অনেকগুলো ম্যাচও আছে। কিন্তু কিছু জায়গায় আমাদের ঘাটতি আছে। তো আমরা সে জায়গাগুলো নিয়ে কাজ করছি। প্লেয়ারদের পারফরমেন্স চাচ্ছি। এই বিপিএলটা আমরা দেখব। কিছু প্লেয়ার যদি পেয়ে যাই এটা আমাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট’।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ছাড়াও এবারের বিপিএলকে তরুণ ক্রিকেটারদের নিজেদের প্রমাণ করার একটি বড় প্লাটফর্ম হিসেবে দেখছেন নান্নু। তিনি বলেন, ‘অনেক ভালো ভালো প্লেয়ার আসছে। আমাদের স্থানীয় প্লেয়ারদের জন্য এটা একটা ভালো সুযোগ। যারা নিজেদের এখনো মানিয়ে নিতে পারেনি তাদের জন্য বড় সুযোগ। বিশেষ করে তুরুন প্লেয়ারদের জন্য’।

আগের ছয় আসরের চেয়ে এবার সম্পূর্ণ ভিন্নভাবে আয়োজন করা হচ্ছে বিপিএল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজন করা হচ্ছে এবারের এ বিশেষ বিপিএল। আগের ছয় আসরে প্রতিযোগিতাটি ছিল ফ্র্যাঞ্চাইজিভিক্তিক। তবে এবার সেই ফ্র্যাঞ্চাইজিভিক্তিক প্রথা বাদ দিয়ে বিসিবি সম্পূর্ণ নিজেদের তত্ত্বাবধানে এটি আয়োজন করছে। বিসিবিই সবগুলো দলের মালিক। দলগুলোর জন্য শুধু স্পন্সর পার্টনার সংগ্রহ করা হয়েছে।

তাও সাতটি দলের সবগুলোর জন্য স্পন্সর পার্টনার পায়নি বিসিবি। সাত দলের মধ্যে পাঁচ দলের জন্য স্পন্সর পেয়েছে তারা। ফলে বাকি দুই দলের সব দায়িত্বই পালন করবে বিসিবি। বঙ্গবন্ধুর সম্মানে এবারের আসরটি আয়োজন করায় এটিতে লাভ-লোকসানের হিসাব কষবে না বিসিবি। তাই ফ্র্যাঞ্চাইজির কাছে দল ছাড়ার বদলে নিজেরাই পরিচালনার দায়িত্ব নেয় দেশীয় ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj