কর্মক্ষেত্রে উন্নতির পরিকল্পনা

রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯

জীবনের যে কোনো ক্ষেত্রে সফলতা অর্জনের জন্য সবার আগে যেটা দরকার, সেটা হলো সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য স্থির করা। এরপর গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে সে লক্ষ্য অর্জনের জন্য চাই সঠিক পরিকল্পনা, যা অনুসরণ করে কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে সফলতার পথে এগিয়ে যেতে হবে। তাহলেই কেবল সফলতা অর্জন করা সম্ভব হবে। আর তাই এখনই মোক্ষম সময়।

কর্মক্ষেত্রে উন্নতির পরিকল্পনায় যে বিষয়গুলো গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে-

১. নিজেকে প্রশ্ন করুন আপনি এখন কোন অবস্থানে রয়েছেন এবং কোন অবস্থানে যেতে চান?

২. পরিকল্পনায় নিজের ইচ্ছা, আকাক্সক্ষা, শখ ইত্যাদিকে প্রাধান্য দিন। কারণ যদি এই চাকরিটি আপনার ভালোই না লাগে তাহলে সময় এসে গেছে এই পরিকল্পনা বাদ দিয়ে নতুন কর্মক্ষেত্র খুঁজে বের করার। নাহলে সফলতার পথে অবিচল থাকা প্রায় অসম্ভব।

৩. পরিকল্পনার এই পর্যায়ে ক্যারিয়ারের স্বল্প মেয়াদি লক্ষ্য এবং দীর্ঘ মেয়াদি লক্ষ্য দু’টোই প্রাধান্য দিন।

৪. এবার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে এই লক্ষ্য অর্জনের জন্য আপনার কী কী গুণ থাকা প্রয়োজন? যেমন কতটুকু যোগ্যতা এবং অভিজ্ঞতার সমন্বয়ে সফলতা অর্জন করা সম্ভব। কতটুকু আপনার রয়েছে আর কতটুকু অর্জন করতে হবে।

৫. লক্ষ্য অর্জনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিটি উপাদানের উপর সূ² গবেষণা করে নিন। এতে করে সফলতা অর্জন অনেকটা সহজ হয়ে উঠবে।

টেকনোলজির সাহায্য নিয়ে সফলতার পথে অবিচল থাকুন

আজকের ডিজিটাল পৃথিবীতে টেকনোলজি সহজ করে তুলেছে মানুষের চলমান জীবন, সহজ করেছে মানুষের দৈনন্দিন কাজকর্ম। তাই প্রতিটি ক্ষেত্রেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে এসব টেকনোলজি। যদি আপনি কর্মক্ষেত্রে সফলতা অর্জন করতে চান। আর এজন্য যদি আপনার একটা পরিকল্পনা থাকে তাহলে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়ন সহজ করতে রয়েছে বেশ কিছু অ্যাপস। এই আ্যাপসগুলো আপনার করণীয় কাজগুলোর রিমাইন্ডার হিসেবে কাজ করতে পারে। অ্যাপসগুলো জানিয়ে দিবে আপনার প্রতিদিনের কাজ, যা আপনি আগেই পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন। আমি এমন একটি অ্যাপের নাম বলে দিতে পারি। এ ছাড়াও অসংখ্য টেকনোলজি রয়েছে যেগুলো এর চেয়েও ভালো এবং সহায়ক। যদি এরকম টেকনোলজি জানা থাকে, তাহলে কমেন্ট বক্সে আমাদের সঙ্গে শেয়ার করতে পারেন। এতে করে হাজারো মানুষ উপকৃত হবে।

প্রকাশ করুন আপনার পরিকল্পনা

আপনার পরিকল্পনা খুব কাছের মানুষদের সঙ্গে শেয়ার করুন। এতে করে পরিকল্পনা বাস্তবায়নের একটি তাগিদ অনুভব করবেন। কারণ এই লক্ষ্য অর্জন করতে না পারলে তাদের নিকট নিজেকে ব্যর্থ হিসেবে উপস্থাপন করতে হবে, যা আপনি কখনোই চাইবেন না। তাই আপনার পরিকল্পনা অন্যের সঙ্গে প্রকাশ করলে আপনার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা সহজ হয়ে উঠবে। এ ছাড়াও তাদের সঙ্গে প্রতিদিনের অগ্রগতি শেয়ার করে বাড়িয়ে তুলতে পারেন আত্মবিশ্বাস। প্রয়োজনে তাদের কাছ থেকে সাহায্যও নিতে পারবেন। আপনার বসের কাছে প্রকাশ করতে পারেন আপনার কর্মক্ষেত্রে উন্নয়ন পরিকল্পনা।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj