অনলাইন শপিং : আসক্তির নতুন ফাঁদ

বৃহস্পতিবার, ৫ ডিসেম্বর ২০১৯

অনলাইন শপিং বিশ্বজুড়ে রূপ নিয়েছে আসক্তির এক নতুন ফাঁদে। এ কেনাকাটা এখন আর প্রয়োজনে সীমাবদ্ধ নেই, পৌঁছে গেছে আসক্তির পর্যায়ে। গ্রিনপিসের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, হংকংবাসী প্রতি বছর যে অতিরিক্ত পোশাক ফেলে দেয় তার পরিমাণ ১ লাখ ১০ হাজার টন। অর্থাৎ জনপ্রতি ১৫ কেজি। এর অধিকাংশই ক্রেডিট কার্ড ও অনলাইনে কেনা। বাংলাদেশও পিছিয়ে নেই। বর্তমানে ফেসবুকসহ ওয়েবভিত্তিক অনলাইন শপ রয়েছে ১০ হাজারেরও বেশি। বছরে প্রায় ১ হাজার কোটি টাকার পণ্য কেনাবেচা হচ্ছে অনলাইনে।

সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এমন ভয়ঙ্কর চিত্রই উঠে এসেছে। সমীক্ষা বলছে, যারা অনলাইন কেনাকাটায় আসক্ত তাদের বেশিরভাগই মানসিক সমস্যায় জর্জরিত, ডিপ্রেশনে ভোগেন। তারা নিজেদের অজান্তেই এমনটি করে থাকেন। এই কেনাকাটার কোনো সীমা-পরিসীমা নেই। একে বলা হচ্ছে বাইং শপিং ডিসঅর্ডার (বিএসডি)। ১২২ জনের ওপর চালানো একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে, তাদের বেশিরভাগই সর্বদা অনলাইন কেনাকাটায় ব্যস্ত থাকেন। প্রতি সপ্তাহে নতুন কিছু চাই তাদের। এটি আসলে আর কিছু নয়, এক রকম মানসিক ব্যাধি। কোথাও গিয়ে তারা একাকিত্ববোধ করেন। তাই কেনাকাটা, সাজগোজ, বাড়ি সাজানো, পাপোশ বদলানোর মধ্য দিয়ে নিজেদের মন অন্যদিকে ব্যস্ত রাখেন; যা নিজেরাও টের পান না। চিকিৎসকরা বলছেন, এই রোগ শুরুতেই সামাল দিতে না পারলে পরিস্থিতি অন্য দিকে যেতে পারে। যারা সারাক্ষণ অনলাইন কেনাকাটায় থাকেন তাদের অবিলম্বে কাউন্সেলিং করানো উচিত। এ বিষয়ে সবার আগে প্রয়োজন পরিবারের সহযোগিতা। কাছের আত্মীয়-বন্ধুদের বোঝাতে হবে তিনি যা করছেন তা ঠিক করছেন না। কগনেটিভ বিহেডিয়ারাল থেরাপির মধ্য দিয়ে গেলে অনেকাংশে এসব রোগ সেরে যায়। প্রয়োজন মতো নিজের ফোন থেকে কিছু অ্যাপ ডিলিট করা এবং দৃষ্টিভঙ্গি বদলে মনে রাখা প্রয়োজন, একটা জুতা কিংবা জামা কখনোই আপনার জীবন বদলে দিতে পারে না। তাই অনলাইনে পণ্য যতই হাতের নাগালে থাকুক, আসক্তির কানাগলিতে ঢুকে পড়ার আগেই সচেতন হোন।

জান্নাত আরা মমতাজ

রামপুরা, ঢাকা।

মুক্তচিন্তা'র আরও সংবাদ
আ ব ম খোরশিদ আলম খান

ঘরে বসে তারাবিহ্র নামাজ পড়ুন

ড. এম জি. নিয়োগী

ধান ব্যাংক

মযহারুল ইসলাম বাবলা

করোনার নির্মমতার ভেতর-বাহির

অধ্যাপক ড. আবদুল মান্নান চৌধুরী

শিক্ষা খাতে প্রণোদনা প্যাকেজ প্রয়োজন

মমতাজউদ্দীন পাটোয়ারী

করোনা যুদ্ধে জয়ী হওয়া

অধ্যাপক ড. অরূপরতন চৌধুরী

করোনা ভাইরাস এবং আমাদের যতœ

Bhorerkagoj