ওয়ার্নারের সেঞ্চুরিতে চালকের আসনে অস্ট্রেলিয়া

শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯

খেলা ডেস্ক : পাকিস্তানের বিপক্ষে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচের দ্বিতীয় দিনই ম্যাচকে নিজেদের কব্জায় নিয়ে নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। গতকাল এক উইকেট হারিয়ে ৩১২ রান করে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে তারা। অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার। ১৫১ রান করে এখনো অপরাজিত রয়েছেন তিনি। তবে ওয়ার্নার সেঞ্চুরি পূর্ণ করতে পারলেও অল্পের জন্য সেঞ্চুরি মিস করেন আরেক ওপেনার জো বার্নস। তিনি ৯৭ রান করে স্পিনার ইয়াসির শাহের ঘূর্ণির ফাঁদে পড়েন। ওয়ার্নারের সঙ্গে এখন ৫৫ রান করে ক্রিজে রয়েছেন মার্নাস লেবুচানে। তবে বার্নস আউট হওয়ার আগে ওয়ার্নারের সঙ্গে পার্টনারশিপে দলের রানের খাতায় যোগ করেন ২২২ রান।

ম্যাচটিতে পাকিস্তান তাদের প্রথম ইনিংসে সংগ্রহ করেছিল ২৪০ রান। এখন দ্বিতীয় দিন শেষে ৩১২ রান করার সুবাদে পাকিস্তানের চেয়ে ৭২ রানে এগিয়ে আছে অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচের বাকি রয়েছে আরো তিন দিন। অপরদিকে হাতে রয়েছে ৯ উইকেট। আবার ব্যাটসম্যানদের তালিকায় রয়েছে স্টিভ স্মিথের মতো ব্যাটসম্যান। ফলে রানের অঙ্কটাকে যে অজিরা বেশ দীর্ঘায়িত করতে যাচ্ছে তা বলাই যায়।

এদিকে এই ম্যাচের মাধ্যমে দীর্ঘ তিন বছর পর আবার একসঙ্গে টেস্টে ওপেনিং করেন ওয়ার্নার ও বার্নস। আর একসঙ্গে হয়েই গড়ে ফেললেন বিশাল পার্টনারশিপ। এই তিন বছরে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট বোর্ড ১৩ বার ওপেনিং ব্যাটসম্যানের কম্বিনেশনে পরিবর্তন এনেছে। কিন্তু অন্যরা পারফরমেন্স দিয়ে সন্তুষ্ট করতে পারেনি টিম ম্যানেজম্যান্টকে। ফলে আবার ওয়ার্নার-বার্নস জুটিই ফিরিয়ে নিয়ে আসে তারা। আর ফলাফলও হাতেনাতে পেয়ে যায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া।

গতকাল এ দুজনের করা পার্টনারশিপের আলোচনায় মুখরিত ছিল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাঙ্গন। আলোচনা থেকে বাদ ছিলেন না বার্নস নিজেও। দিন শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে কথা বলেন বার্নস। সেখানে বলেন, ওয়ার্নারের সঙ্গে ব্যাট করতে আমি সব সময় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। আমি ডানহাতি ও বাঁ-হাতি। এই ডান-বাম কম্বিনেশনের কারণে রান পেতে সহজ হয়েছে আমাদের। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সিরিশ কাগজ কাণ্ডে এক বছর সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞায় ছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। গত বিশ^কাপে তিনি দলে ফিরেছিলেন। বিশ^কাপে পারফরর্ম করে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অ্যাশেজ সিরিজেও জায়গা পেয়েছিলেন। তবে সিরিজের পাঁচটি ম্যাচ খেলে দশ ইনিংসে ব্যাটিং করে মাত্র এক ইনিংসে পার করতে পেরেছিলেন পঞ্চাশের ঘর। ফলে টেস্ট দল থেকে বাদ পড়ে যাওয়ার শঙ্কায় পড়েছিলেন তিনি। তবে আবার সুযোগ পেয়ে সেটিকে দারুণভাবে কাজে লাগালেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা এই ওপেনার।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj