বসলো ১৬তম স্প্যান : দৃশ্যমান হলো পদ্মা সেতুর আড়াই কি.মি.

বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯

জাহাঙ্গীর আলম, মাদারীপুর থেকে : পদ্মা সেতুতে ২৭ দিনের ব্যবধানে বসলো আরেকটি স্প্যান। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরের দিকে মাওয়া প্রান্তে ১৬ ও ১৭ নম্বর পিলারের ওপর ১৬তম স্প্যান বসানোর মাধ্যমে দৃশ্যমান হলো সেতুর ২ দশমিক ৪ কিলোমিটার।

এদিকে, সেতুর ৪২টি পিলারের মধ্যে ৩২টির কাজ সম্পন্ন হয়েছে। চলতি মাসেই আরো দুইটি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা আছে। সেতুর ২২ ও ২৩ নম্বর পিলারের স্প্যান ‘৪-ডি’ নদীর তীরে প্ল্যাটফর্মে রাখা আছে। ২১ ও ২২ নম্বর পিলারের স্প্যান ‘৪-সি’ পিলারের ওপর বসানোর জন্য প্রস্তুত আছে। এ ছাড়া মাওয়া কন্সট্রাকশন ইয়ার্ডে ৬-এ, ৬-বি, ৬-সি পেইন্টিং শেষে পিলারের ওপর নিয়ে যাওয়ার অপেক্ষায়।

পদ্মা সেতুর প্রকৌশল বিভাগের একাধিক সূত্র জানায়, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটিকে বহন করে রওয়ানা করে ‘তিয়ান ই’ ভাসমান ক্রেন। সাড়ে ১০টার দিকে নির্ধারিত পিলারের সামনে এসে কার্যক্রম শুরু হয় স্প্যান বসানোর।

আবহাওয়া আর ভাসমান ক্রেনটির অ্যাংকরিংসহ সবকিছু অনুক‚লে থাকায় কোনো রকম জটিলতা ছাড়াই স্প্যানটি বসানো হয় পিলারের ওপর।

দায়িত্বশীল একাধিক প্রকৌশলী জানান, ২২ ও ২৩ নম্বর খুঁটির জন্য তৈরি করা ৪ডি স্প্যানটি ২৮ ও ২৯ নম্বর খুঁটির কাছে নদীর তীরে রাখা আছে। কিন্তু নদীর চ্যানেলের নাব্যতার সংকটে স্প্যানটি সেখান থেকে তুলে এনে স্থাপনে বিলম্ব হচ্ছিল। তবে দিনরাত ড্রেজিং করে ওই এলাকায় নাব্যতা ফিরিয়ে আনা হয়েছে। এদিকে ওয়ার্কশপের ইয়ার্ডে ৬এ, ৬বি, ৬সি নম্বর স্প্যান বেশ কিছুদিন ধরে তৈরি আছে।

পদ্মা সেতুর সর্বশেষ খবরানুযায়ী সেতুর ৪২টি খুঁটির মধ্যে ৩৩ খুঁটি সম্পন্ন হয়ে গেছে। বাকি নয়টি খুঁটির কাজ দ্রুত এগিয়ে চলেছে। এখন শুধু পাইলের ওপর ক্যাপিং করার কাজ রয়েছে। বসানো স্প্যানে ¯ø্যাব স্থাপনের কাজও চলছে সমান তালে। সেতুর নিচের অংশে রেলওয়ে ¯ø্যাব বসেছে ৩৬২টি। রেলওয়েতে ২ হাজার ৯৫৯টি প্রিকাস্ট ¯ø্যাব প্রয়োজন। এর মধ্যে ২ হাজার ৯২৪টির কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

মূল সেতু নির্মাণের জন্য কাজ করছে চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি (এমবিইসি)। নদী শাসনের কাজ করছে দেশটির আরেক প্রতিষ্ঠান সিনোহাইড্রো করপোরেশন। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে সেতুটির কাঠামো।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj