আইটি ইনকিউবেটর স্টার্টআপ

রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯

বাংলালিংক আইটি ইনকিউবেটরের তৃতীয় ব্যাচের স্টার্টআপস বাছাই প্রক্রিয়া শুরু করেছে। বাংলালিংক এবং বাংলাদেশ সরকারের আইসিটি বিভাগের অধীনস্থ বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ যৌথভাবে এই কার্যক্রম শুরু করে ২০১৬ সালে। বাংলালিংক নির্বাচিত স্টার্টআপগুলোকে অবকাঠামো, উপকরণ, এবং নির্দেশনাগত সহায়তা প্রদান করে থাকে। প্রাথমিকভাবে স্টার্টআপগুলোকে তাদের অভিনব পরিকল্পনা, ব্যবসায়িক সম্ভাবনা এবং দলগত শক্তিমত্তার ভিত্তিতে নির্বাচন করা হয়। নির্বাচিত স্টার্টআপগুলো তাদের সব কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্যে কারওয়ান বাজারে অবস্থিত জনতা টাওয়ারে অফিস স্পেসের সুবিধা, অনলাইনে শিক্ষা সহায়তামূলক কার্যক্রমে বিনামূল্যে অংশ নেবার পাশাপাশি অন্য সুবিধাও ভোগ করবে। প্রতিশ্রæতিশীল স্টার্টআপগুলোর বাংলালিংকের সঙ্গে অংশীদারিত্ব উপভোগ করার মত সুযোগও থাকবে। অনলাইনে আবেদন জমা দেয়ার শেষ সময় ২৮ নভেম্বর। আইটি ইনকিউবেটর বাংলালিংকের স্বত্ত্বাধিকারী প্রতিষ্ঠান ভিওনের ফ্ল্যাগশিপ কর্পোরেট রেসপন্সিবিলিটি প্রোগ্রাম ‘মেক ইওর মার্ক’-এর অন্তর্ভুক্ত। বিশ্বের যে সব স্থান ভিওনের কার্যক্রমের আওতাধীন সে সব স্থানের আইটি খাতের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে প্রতিষ্ঠানটি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

হোসনে আরা বেগম এনডিসি, ম্যানেজিং ডিরেক্টর (সেক্রেটারি), বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক অথোরিটি বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণে হাইটেক পার্ক অথোরিটি কয়েক বছর ধরে বেশকিছু প্রকল্প পরিচালনা করে আসছে। জনতা টাওয়ার সফটওয়্যার টেকনোলোজি পার্ক একটি অন্যতম প্রকল্প যা দেশের স্টার্টআপকে সহযোগিতা প্রদান করার পাশাপাশি ডিজিটাল অবকাঠামোগত উন্নয়নের লক্ষ্যে পরিচালনা করা হচ্ছে।

:: ডটনেট ডেস্ক

ডট নেট'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj