বিশ্বের ভয়াবহ যত রেল দুর্ঘটনা

শনিবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৯

ভয়াবহ রেল দুর্ঘটনার উদাহরণ বিশ্বে নতুন নয়। পড়–ন বাংলাদেশসহ বিশ্বের কয়েকটি রেল দুর্ঘটনার খবর।

বাংলাদেশ

বাংলাদেশে সবচেয়ে ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ঘটে ১৯৮৯ সালে গাজীপুরের টঙ্গীতে। ওই ঘটনায় প্রাণ হারান ১৭০ জন। ৩০ বছর আগে সেই দুর্ঘটনাও ছিল দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের কারণে। এরপর চট্টগ্রাম লাইনে বেশ কয়েকটি মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় প্রাণ গেছে শতাধিক যাত্রীর। ১৯৮৯ সালের ১৫ জানুয়ারি টঙ্গীর কাছে মাজুখানে দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ ঘটে। এতে ১৭০ জন যাত্রী নিহত এবং ৪০০ জন আহত হন।

মিসর

২০ ফেব্রুয়ারি ২০০২ সালের ঘটনা। মিসরের কায়রো থেকে লুক্সরগামী ট্রেনের একটি বগিতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ ঘটে। মুহূর্তের মধ্যেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে ট্রেনের অন্যান্য বগিতে। এ ঘটনায় ট্রেনটির ৭টি বগি পুড়ে যায় আর নিহত হন ৪০০ মানুষ।

ইথিওপিয়া

আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার আওয়াশ শহরের নিকটে ১৪ জানুয়ারি ১৯৮৫ সালের ট্রেন দুর্ঘটনাটি আফ্রিকার ভয়াবহতম দুর্ঘটনা হিসেবেই পরিচিত। আওয়াশ গিরিখাতের পাশ দিয়ে ছুটে যাওয়া ট্রেনটি লাইনচ্যুত হয়ে খাদে পড়ে গেলে ৪২৮ জন নিহত হয় বলে জানা গেছে।

স্পেন

৩ জানুয়ারি ১৯৪৪ সালের ঘটনা। স্পেনের টরে ডেল বিয়েরজু গ্রামে অবস্থিত ২০ নাম্বার টানেলে একটি মেইল ট্রেইন প্রবেশ করে। এ সময় বিপরীত দিক থেকে কয়লাবাহী আরেকটি ট্রেনের সঙ্গে মুখোমুখি ধাক্কা লাগে দুটো ট্রেনের। ট্রেন দুটিতে বেশ কিছু যাত্রী থাকলেও তারা টিকেট ছাড়াই ভ্রমণ করছিল। যে কারণে হতাহতের সঠিক সংখ্যা জানা যায়নি। তবে সংঘর্ষের ফলে ট্রেন দুটিতে সৃষ্ট আগুন টানা দুদিন ধরে জ্বলছিল।

মেক্সিকো

১৯১৫ সালের এ দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ছিল ৬০০। মেক্সিকো বিপ্লব তখন বেশ তুঙ্গে। যাত্রীসমেত একটি ট্রেন নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

ভারত

১৯৮১ সালের ঘটনা এটি। প্রায় এক হাজারের যাত্রী নিয়ে বিহারের বাঘমতি নদীতে পড়ে যায় একটি ট্রেন। টেনটি যখন সেতুর কাছে এসেছিল ঠিক সে মুহূর্তে একটি গরু ট্রেনলাইন পার হচ্ছিল। গরুটিকে বাচানোর চেষ্টা করতে গেলে রেলের নিয়ন্ত্রণ হারায় চালক। পাঁচশর অধিক যাত্রী নিহত হয়েছিল এ দুর্ঘটনায়।

রোমানিয়া

১৯১৭ সালের ঘটনা। রোমানিয়ার সিউরেয়া স্টেশনের নিকটবর্তী এলাকায় একটি ট্রেনে আগুন ধরে গেলে অন্তত ৬০০ যাত্রী নিহত হন (কোনো কোনো হিসেবে সংখ্যাটি)।

ফ্রান্স

১৯১৭ সালের ১২ ডিসেম্বর। প্রচণ্ড গতির কারণে আল্পস পর্বতের পাশ দিয়ে যাওয়া ফ্রান্সের সৈন্যবাহী একটি ট্রেনের ব্রেকে আগুন ধরে যায়। ধারণা করা হয় এ দুর্ঘটনায় যাত্রীদের সবাই নিহত হয়।

শ্রীলঙ্কা

২০০৪ সালের সুনামির দিনে প্রায় দেড় হাজার যাত্রী নিয়ে সমুদ্র থেকে মাত্র ২১৭ গজ দূরে অবস্থান করছিল একটি ট্রেন। সুনামির প্রথম ঢেউটি আসার সময়ে স্টেশনের আরো অনেক যাত্রী টেনটিকে নিরাপদ ভেবে আশ্রয় নেয়। ১ হাজার ৭০০ জনের অধিক মানুষ এ ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত হয়।

দূরের জানালা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj