ওবায়দুল কাদের : এখন কথামালার রাজনীতি করছে বিএনপি

শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : বিএনপি এখন কথামালার রাজনীতি করছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সব ক্ষেত্রেই ব্যর্থ। তিনি নির্বাচনে ব্যর্থ, আন্দোলনেও ব্যর্থ। তাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে মুক্তির ব্যাপারে আজ পর্যন্ত একটা আন্দোলন?ও গড়ে তুলতে পারেনি। তাই ফখরুলের এখন কথার মালা ছাড়া আর কোনো সম্পদ নেই। গতকাল বৃহস্পতিবার ‘আওয়ামী লীগ থেকে বিএনপিতে যাওয়ার জন্য নেতারা চেষ্টা করছে’- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে ওবায়দুল কাদেরের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন স্থান পরিদর্শন করেন কাদের।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরউল্লাহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আবদুস সবুর, সাবেক বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী মির্জা আজম, সাবেক এডভোকেট খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল রঞ্জন গুহ, সহসভাপতি মতিউর রহমান মতি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আলিম, শেখ সোহেল রানা টিপু, সুব্রত পুরকায়স্থ, খায়রুল ইসলাম জুয়েল, সাজ্জাদ সাকিব বাদশা প্রমুখ।

সংগঠনগুলোতে নেতৃত্ব পরিবর্তন সম্পর্কে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের বলেন, যুবলীগ-স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদককে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এ জন্য তাদের সম্মেলনেও আমন্ত্রণ জানানো হবে না। যুবলীগ-স্বেচ্ছাসেবক লীগের আগামী দিনের নেতৃত্ব ঠিক করবেন কাউন্সিলররা। তারা সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নাম প্রস্তাব করবেন। এ ছাড়া দলীয়প্রধান শেখ হাসিনা সবদিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেবেন।

স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে ১৮ হাজার ডেলিগেট : স্বেচ্ছাসেবক লীগের সম্মেলনে প্রায় ২ হাজার কাউন্সিলর এবং ১৮ হাজার ডেলিগেট উপস্থিত থাকবেন। সব মিলিয়ে ৩৫ হাজার মানুষের উপস্থিতি আশা করছেন আয়োজকরা। গতকাল রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক নির্মল গুহ। সম্মেলনের প্রস্তুতি প্রায় শেষ জানিয়ে তিনি বলেন, বেলা ১১টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সম্মেলনকে সফল করতে কাজ করছে ১৩টি উপকমিটি। তিনি জানান, মহানগর দক্ষিণে ২৪ জন সভাপতি ও ২৮ জন সাধারণ সম্পাদকের নাম এবং উত্তরে সভাপতি পদে ১১ জন এবং সাধারণ সম্পাদক পদে ১৮ জনের নাম প্রস্তাব করেছেন কাউন্সিলরা। কেন্দ্রীয় সম্মেলনে দুই কমিটির নেতৃত্ব চূড়ান্ত হবে।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- সদস্য সচিব গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, সহসভাপতি মতিউর রহমান মতি, গোলাম সারোয়ার মামুন, শহীদুল্লাহ মিল্টন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল আনিস, সুব্রত পুরকায়স্থ, সাজ্জাদ হোসেন বাদশা, মিডিয়া উপকমিটির আহ্বায়ক উৎপল কুমার সরকার প্রমুখ।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj