বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র বিল পাস

শুক্রবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : কারিগরি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জনবল তৈরি, গবেষণার মাধ্যমে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে শিল্প উৎপাদন, অত্যাধুনিক যন্ত্রাংশ তৈরি ও মেরামত করে শিল্পোউৎপাদন বৃদ্ধি এবং এ সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দিয়ে দক্ষতা ও উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে একটি কারিগরি কেন্দ্র প্রতিষ্ঠার বিধান রেখে বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র বিল-২০১৯ গতকাল বৃহস্পতিবার সংসদে পাস হয়েছে। শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ন বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন।

এসময় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী সংসদে সভাপতিত্ব করছিলেন।

বিলের বিধানের উদ্দেশ্য পূরণে ইতোপূর্বে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ শিল্প কারিগরি সহায়তা কেন্দ্র এই বিলের বিধানের অধীনেই প্রতিষ্ঠিত বলে বহাল রাখার বিধান রাখা হয়। সংবিধিবদ্ধ সংস্থা হিসেবে এ কেন্দ্রের প্রধান কার্যালয় ঢাকায় থাকবে। তবে সরকারের পূর্বানুমোদনক্রমে দেশের যেকোনো স্থানে এর আঞ্চলিক কার্যালয় স্থাপন করতে পারবে। বিলে কেন্দ্রের পরিচালনা ও কার্যাবলি সম্পাদনে শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিবকে চেয়ারম্যান করে ১১ সদস্যের পরিচালনা পর্ষদ গঠনের বিধান করা হয়।

বিলে পরিচালনা পর্ষদের সভা, কমিটি গঠন, মহাপরিচালক নিয়োগ ও তার দায়িত্ব-ক্ষমতা, কর্মচারী নিয়োগ, তহবিল, বাজেট, বার্ষিক প্রতিবেদন, হিসাব ও নিরীক্ষা, ক্ষমতা অর্পণ ও বিধি-প্রবিধি প্রণয়নের ক্ষমতাসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধান করা হয়।

জাতীয় পার্টির পীর ফজলুর রহমান, শামীম হায়দার পাটোয়ারী, বেগম রওশন আরা মান্নান, মুজিবুল হক, বিএনপির হারুনুর রশীদ, মোশাররফ হোসেন ও রুমিন ফারহানা বিলের ওপর জনমত যাচাইবাছাই কমিটিতে প্রেরণ ও সংশোধনী প্রস্তাব আনলে তা কণ্ঠভোটে নাকচ হয়।

দ্বিতীয় সংস্করন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj