বাবুর স্মরণসভায় কাদের : দলে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করতে হবে

বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

চট্টগ্রাম অফিস : কিছু খারাপ লোকের দায় আওয়ামী লীগ নেবে না বলে মন্তব্য করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, দলে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই। যারা অন্তর্কলহ, অপকর্ম, দুর্নীতি, টেন্ডারবাজি, ভূমি দখল, মাদক কারবারি তাদের স্থান আওয়ামী লীগে হবে না। দূষিত রক্ত ফেলে দলে বিশুদ্ধ রক্ত সঞ্চালন করতে হবে।

গতকাল বুধবার কে বি কনভেনশন সেন্টারে আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগই আওয়ামী লীগের শত্রু। তুচ্ছ কারণে যখন অবাঞ্চিত ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে তখন মনে বড় কষ্ট লাগে। সামান্য কারণে একে অন্যের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। নিজেদের মধ্যেকার কলহই চট্টগ্রামের বড় দুর্বলতা।

এর আগে তৃতীয় কর্ণফুলী সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ৬ লেন বিশিষ্ট ৮ কিলোমিটার এপ্রোচ সড়ক পরিদর্শন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় তিনি বলেন, কালুরঘাট সেতুর নির্মাণকাজ কোরিয়ার অর্থায়নে আগামী বছর শুরু হবে। সড়ক সেতুর কাজের ব্যাপারেও কোরিয়ার সঙ্গে আলোচনা চলছে। এ ছাড়া চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এটির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে।

স্মরণ সভায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ’৭৫ পরবর্তী সময় রক্তচক্ষু ও প্রতিবন্ধকতার মধ্যে আওয়ামী লীগ টিকে আছে বাবু ভাইদের মতো নেতাদের জন্য। তিনি রাজনীতিকে ব্রত হিসেবে নিয়েছিলেন। প্রয়াতের সন্তান ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেন, ’৭৫-এর পর আওয়ামী লীগ করার মতো মানুষ পাওয়া যায়নি। অথচ আজ অনেকে দল করতে চায়।

তিনি বলেন, তার বাবা ব্যক্তি জীবনে সফল ব্যবসায়ী হলেও ব্যবসার জন্য তিনি রাজনীতি করেননি।

এদিকে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ওয়ান ইলেভেনের পর দুঃসময়ে যখন অনেক বড় বড় নেতা আস্থা সংকটে ছিলেন তখন আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু আস্থা হারাননি।

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু বিত্তশালী ছিলেন; তবে, তিনি সাধারণ মানুষকে আপন করে টেনে নিতেন, অথচ আজ বিত্তবানরা দলকে নিজের সম্পত্তিতে পরিণত করতে চান।

স্মরণ সভায় আরো বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম। দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন সাংসদ নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও আবু রেজা মুহাম্মদ নেজাম উদ্দিন নদভী, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম, উপজেলা চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল, নহর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, নোমান আল মাহমুদ, আবুল কালাম আজাদ, শাহজাদা মহিউদ্দিন, মোতাহারুল ইসলাম চৌধুরী।

এই জনপদ'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj