টি-টেনের আদ্যোপান্ত

মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯

ক্রিকেটের সবচেয়ে নতুন আর সংক্ষিপ্ত সংস্করণ হচ্ছে টি-টেন। যার সবচেয়ে আকর্ষণীয় ও নতুন বিষয়টি হচ্ছে প্রত্যেকটি ম্যাচ নির্ধারিত ৯০ মিনিট সময়সীমার মধ্যে শেষ করার বাধ্যবাধকতা। আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে ২৪ নভেম্বর তৃতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে টি-টেন লিগ বা আবুধাবি টি-টেন লিগ। এবারের আসরে বাংলা টাইগার্স, ডেকান গø্যাডিয়েটরস, দিল্লি বুলস, কর্নাটক টাসকার্স, মারাঠা অ্যারাবিয়ানস, নর্দান ওয়ারিয়র্স, কালান্দার্স ও টিম আবুধাবি নামের আটটি ফ্র্যাঞ্চাইজি অংশ নেবে। সবগুলো ম্যাচই সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবির শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে। আগের আসরে খেলা দ্য সিন্ধিস, বেঙ্গল টাইগার্স ও পাখতোনসের পরিবর্তে যথাক্রমে নবগঠিত ডেকান গø্যাডিয়েটরস, দিল্লি বুলস ও বাংলা টাইগার্স জায়গা নেয়।

রাউন্ড রবিন লিগ ভিত্তিতে আমিরাত ক্রিকেট বোর্ডের তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিতব্য এই টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মতো অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজি। বাংলা টাইগাসের্র স্বত্বাধিকারী হিসেবে আছেন বাংলাদেশের দুই ব্যবসায়ী ইয়াসিন চৌধুরী এবং সিরাজুদ্দিন আলমগীর। আর এর ম্যানেজার, প্রধান কোচ ও ব্যাটিং কোচের দায়িত্বে থাকছেন যথাক্রমে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় নাফিস ইকবাল খান, আফতাব আহমেদ চৌধুরী ও নাজিম উদ্দিন।

বাংলা টাইগার্সে খেলার কথা ছিল বাংলাদেশের ৭ ক্রিকেটারের। কিছুদিন আগে টুর্নামেন্টের প্লেয়ার ড্রাফটে এনামুল হক বিজয়, ফরহাদ রেজা, জুনায়েদ সিদ্দিকী, আরাফাত সানি, ইয়াসির আলী রাব্বি, মেহেদি হাসান ও আবু হায়দার রনিসহ মোট সাতজন বাংলাদেশি ক্রিকেটারকে দলে ভেড়ায় ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। কিন্তু জাতীয় ক্রিকেট লিগ (এনসিএল), ইমার্জিং দলের এশিয়া কাপ, এ দলের সিরিজসহ বেশ কিছু টুর্নামেন্টের কারণে ফরহাদ রেজা ছাড়া আর কেউই বিসিবির ছাড়পত্র পাননি। বিসিবির অনাপত্তিপত্রের কারণে সেখানে খেলছেন মাত্র একজন বাংলাদেশি ক্রিকেটার ফরহাদ রেজা।

ফরহাদ রেজা ১৬ জুন, ১৯৮৬ সালে রাজশাহীতে জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। জুলাই ২০০৬ সালে তার একদিনের আন্তর্জাতিক অভিষেক ঘটে জিম্বাবয়ের বিপক্ষে এবং বাংলাদেশের একমাত্র ব্যাটসম্যান হিসেবে অভিষেকে অর্ধশতক করার গৌরব অর্জন করেন। তিনি ডানহাতি মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান এবং ডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলাররূপে পরিচিত। তিনি ঘরোয়া ক্রিকেট ২০০৪ সাল থেকে রাজশাহী বিভাগের হয়ে খেলছেন।

প্রাথমিকভাবে রেজাকে জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি কিন্তু পরবর্তীতে তাপস বৈশ্যের ইনজুরির কারণে তাকে স্কোয়াডে রাখা হয়। ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লিগ (আইসিএল) খেলার কারণে মাত্র ২২ বছর বয়সে সেপ্টেম্বর ২০০৮ সালে আন্তর্জাতিক এবং ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে অবসর নেন। পরবর্তীতে তিনি পুনরায় খেলার মাঠে ফেরেন। গত ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ১৬ ম্যাচে ৩৮ উইকেট নিয়ে আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি তিনি।

এ ছাড়া ব্যাট হাতেও ছিলেন কার্যকরী। নিয়েছেন ২০৭ রান। এর আগে লিগের টি-টোয়েন্টি ম্যাচগুলোতে ৪ ম্যাচে ১১ উইকেট ও ২২৭.৬৫ স্ট্রাইক রেটে রান করেছেন ১০৭। বিসিএল, এনসিএল মিলিয়ে এবারের মৌসুমে ১০০ উইকেট শিকার করেছেন। এর আগের মৌসুমে সংখ্যাটা ছিল ৬৭। ঘরোয়া লিগের এই ফর্মই ২০১৪ সালের পর ফরহাদ রেজাকে পুনরায় জাতীয় দলে খেলতে সুযোগ করে দিয়েছে। সেই সুযোগ কতটুকু কাজে লাগাতে পারেন তা দেখার অপেক্ষা। বাংলাদেশিদের মালিকানায় ফ্র্যাঞ্চাইজিটির প্রথম ম্যাচ ১৬ নভেম্বর ডেকান গø্যাডিয়েটরসের বিপক্ষে বিকেল সাড়ে ৩টায়।

ওদিকে প্রথমবারের মতো টি-টেন লিগে অংশ নিতে যাওয়া বাংলাদেশি মালিকানাধীন দল বাংলা টাইগার্স আলোচনার অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এরইমধ্যে দুবাইয়ে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশি ক্রিকেট সমর্থকদের কথা মাথায় রেখে অনন্য এক উদ্যোগ নিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। আরব আমিরাতের বিভিন্ন জায়গা থেকে স্টেডিয়ামে আসতে যাতায়াতের সুবিধার জন্য প্রতি ম্যাচে ৬০টি বাসের ব্যবস্থা করছে বাংলা টাইগার্স।

:: আ ত ম মাসুদুল বারী

গ্যালারি'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj