অপমৃত্যু সুন্দরের : জোছনা হক

শনিবার, ৯ নভেম্বর ২০১৯

খুব ভোরে সূর্যের খরতাপে

দূর্বাঘাসের আলিঙ্গনে

কিছু শিশিরের অপমৃত্যু হয়েছিল।

আমি নির্বোধ, মূর্খ মানবী

নিজেকে খুঁজে পাই না

এই বহুল আলোচিত জগৎ সংসারে

খুঁজতে গেলেই দেখি

কেবল সুন্দরের অপমৃত্যু।

কোনো অদৃশ্যমান পথে

পথ চলতে চলতে

সোনালি সন্ধ্যায়

অবলা কুমারীর নৃত্যের ঝঙ্কারে

সতীত্বের অপমৃত্যু হতে দেখেছি।

উড়ে চলে বাবুই পাখি

ডানা মেলে আকাশপথে

অসীমের রিক্ততা ছুঁতেই

খেয়ালি ঝড়ো হাওয়া

এক ধাক্কায় দিয়ে দিল অপমৃত্যু।

আমি দেখেছি

হাসনাহেনা, চাঁপা-মাধবী

কোনো রূপসীর হেঁয়ালি খোঁপায়

সৌন্দর্য বিলীন করতে গিয়ে

তিলে তিলে অপমৃত্যুর দিকে ঠেলে দিতে।

আমি দেখেছি মুকুলে ঝরে যেতে

কোনো দুঃখিনী মায়ের স্বপ্ন

ফুটপাতে নিভানো সোডিয়াম বাতির মতো

ভোরে দেখি একটি স্বপ্নের অপমৃত্যু।

রাতের বিবস্ত্র বাসরে

স্বেচ্ছাচারী মেঘের ভিড়ে

জোছনার আলো ছড়াতে

কলঙ্কিত হয়েছিল চাঁদ

অপমৃত্যু হয়েছিল একটি রাতের।

এখানে প্রতিদিন ভোর হয়

অপমৃত্যু হয় অনেক আশার

এখানে প্রতিদিন দুপুর হয়

অপমৃত্যু হয় তৃষ্ণার

এখানে প্রতিদিন সন্ধ্যা হয়

অপমৃত্যু হয় কত প্রদীপের

এখানে প্রতিদিন রাত হয়

অপমৃত্যু হয় কত চাওয়া-পাওয়ার

এখানে প্রতিদিন মধ্যরাত হয়

অপমৃত্যু হয় অনেক জমানো স্বপ্নের।

আমি হয়তো আছি

এখানে বা ওখানে কিংবা নেই

হয়তো এই বহুল আলোচিত সংসারে

দিন-রাতে অপমৃত্যুর ভিড়ে

একদিন আমারও মৃত্যু হবে।

:: নাসিরাবাদ, চট্টগ্রাম

পাঠক ফোরাম'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj