নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে আন্দোলন অব্যাহত

শুক্রবার, ৮ নভেম্বর ২০১৯

জাবি প্রতিনিধি : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) বন্ধ ঘোষণার তৃতীয় দিনেও প্রশাসনিক নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত রেখেছে ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে জাহাঙ্গীরনগর’ এর ব্যানারে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। এর আগে বুধবার রাত ৮টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ অফিসের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক মো. আবদুস সালাম মিঞা স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সব ধরনের সভা-সমাবেশ ও মিছিলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়।
নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে জড়ো হতে থাকেন। পরে বেলা সাড়ে ১২টার দিকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন তারা। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে এবং উপাচার্যের বাসভবনের সামনে দিয়ে আবারো প্রশাসনিক ভবনে অবস্থান নেয়। সেখানে মিছিল পরবর্তী একটি বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আন্দোলনকারী শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। পরে বিকেলে উপাচার্যের বাসভবনের সামনে পূর্বঘোষিত ‘দুর্নীতিবিরোধী কনসার্ট’ অনুষ্ঠিত হয়।
এদিকে আগের দিনের শিক্ষা উপমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাপারে আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক অধ্যাপক সাঈদ ফেরদৌস বলেন, ‘মন্ত্রী যে কথা বলেছেন সেই কথার সঙ্গে আমরা দ্বিমত পোষণ করছি। উনি আমাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের প্রমাণ সহকারে লিখিত অভিযোগ করতে বলেছেন। আমরা তো বিষয়টি প্রমাণ করতে আসেনি, আমরা অভিযোগ তুলেছি। এখন তদন্ত করে এই অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করার দায়িত্ব সংশ্লিষ্টদের।’
তিনি আরো বলেন, ‘তদন্তে যদি উপাচার্য নির্দোষ হয়; তখন কোনো কথা হবে না। কিন্তু এটা প্রমাণ করার দায়িত্ব যখন কেউ নিচ্ছেন না তখনই আমরা আন্দোলনে নেমেছি।’

ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদকের পদত্যাগ : জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম আবু সুফিয়ান চঞ্চল পদত্যাগ করেছেন। গত মঙ্গলবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের দপ্তর সম্পাদক বরাবর পদত্যাগপত্র জমা দিলেও গতকাল সন্ধ্যায় বিষয়টি জানাজানি হয়।
তার পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করেন দপ্তর সম্পাদক আহসান হাবিব। তবে কী কারণ দেখিয়ে চঞ্চল পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন সে বিষয়ে কিছু বলেননি তিনি। আহসান হাবিব বলেন, পদত্যাগপত্র পেলেও তার বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। চঞ্চল কেন পদত্যাগ করেছেন তা পরে জানানো হবে।
এ বিষয়ে জানতে পদত্যাগ করা সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চলকে একাধিকবার ফোন দেয়া হয়েছে। তবে তার ব্যবহৃত মুঠোফোন নম্বরটি বন্ধ থাকায় বক্তব্য জানা যায়নি।
শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না। কেন্দ্রের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিষয়টি জানার চেষ্টা করছি।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj