ইডেন টেস্টের টিকেট নিয়ে কাড়াকাড়ি

শুক্রবার, ৮ নভেম্বর ২০১৯

খেলা প্রতিবেদক : বাংলাদেশ এবং ভারত আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এখন পর্যন্ত গোলাপি বলে দিবা-রাত্রির টেস্ট ম্যাচ খেলেনি। আগামী ২২ নভেম্বর ইডেন গার্ডেনসে দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি গোলাপি বল দিয়ে খেলতে মাঠে নামবে দুদল। এই ইডেন টেস্ট নিয়ে বাড়তি পরিকল্পনা সাজিয়েছেন বিসিসিআই নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। তার ভাবনা জুড়ে আছে কীভাবে ইডেনে ম্যাচটি আরো আকর্ষণীয় করে তোলা যায়। কলকাতা টেস্টে ইতিহাসের অংশ হবে ভারত-বাংলাদেশ। নিজেদের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো খেলবে দিবা-রাত্রির টেস্ট। এ ম্যাচ নিয়ে বিসিসিআই আয়োজনের কমতি রাখছে না। ঐতিহাসিক এ টেস্টে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি থাকবেন। এমনকি ইডেন টেস্টে বিসিসিআই সভাপতি গাঙ্গুলি বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন কণ্ঠশিল্পী রুনা লায়লাকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। কিংবদন্তি এ গায়িকা ম্যাচ শুরুর আগে গান গাইবেন। এতো এতো আয়োজনের ইডেন টেস্ট ম্যাচের টিকেট নিয়ে ভক্ত-সর্মথকদের মধ্যে কাড়াকাড়ি শুরু হয়েছে। গতকাল ক্রিকেট এসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি) এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। ইডেন গার্ডেন টেস্টে উপস্থিত থাকতে এরই মধ্যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন গাঙ্গুলি। আমাদের ক্রীড়াপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমন্ত্রণ গ্রহণ করেছেন। ঘণ্টা বাজিয়ে খেলা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তা ছাড়া আগামী ২১ নভেম্বর কলকাতা যাওয়ার কথা জানিয়েছেন রুনা লায়লা। তিনি খেলা শুরুর আগে ১৫ মিনিটের মতো গান গাইবেন। ওই দিন রুনা লায়লা বেশ কয়েকটি গান গাইবেন। আমন্ত্রিত অতিথিদের মধ্যে কিংবদন্তি ক্রিকেটার শচীন টেন্ডুলকারকেও আনার চেষ্টা করছেন বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি।

ইডেনে ম্যাচ শুরু হওয়ার আগে দেখা যাবে হেলিকপ্টার শো। দর্শকদের জন্য থাববে গোলাপি রংয়ের বিশেষ ডিজাইনের টিকেট। কী রকম হবে টিকেটের নকশা? জানা গেছে টিকেটে ইডেনের একটি ছবি থাকবে। সেই সঙ্গেই গোলাপি আভা রাখা হবে। প্রথম তিন দিনের টিকেট ছাড়া হয়েছিল অনলাইনে। ক্রিকেট এসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রথম তিন দিনের জন্য অনলাইনে ছাড়া টিকেটের মধ্যে ৩০ শতাংশ বিক্রি (৫৯০৫ টিকিট) হয়ে গেছে। এ ছাড়া চতুর্থ দিনের টিকেট বিক্রি হয়েছে সাড়ে তিন হাজারের বেশি।

২০০০ সালে ভারতের বিপক্ষে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ যে দল খেলিয়েছিল সে দলের সবাইকেও আমন্ত্রণ জানিয়েছে সিএবি। টেস্টের প্রথম দিনে ৪০ মিনিটের নৈশভোজ বিরতির সময় এইচআইভি পজিটিভ শিশুদেরও খেলার সুযোগ করে দেবে তারা।

খেলা-ধূলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj