শিক্ষা উপমন্ত্রী ; সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দিলে জাবি ভিসির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

বৃহস্পতিবার, ৭ নভেম্বর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দিলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের (জাবি) ভিসির বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। কিন্তু আন্দোলনকারীরা উপাচার্যের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনো সুনির্দিষ্ট অভিযোগ নিয়ে আমাদের কাছে আসেননি। এই অবস্থায় তৃতীয় পক্ষ সুযোগ নিতে পারে বলেও জানান তিনি। একই সঙ্গে উপাচার্য অপসারণের দাবিতে জাবিতে চলমান আন্দোলকারীদের ওপর হামলার ঘটনায় ছাত্রলীগের পদধারী কেউ জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গতকাল বুধবার বিকেলে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষা উপমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, জাবির আন্দোলনকারী শিক্ষকরা আমাদের সঙ্গে বৈঠক করে বলেছিলেন ৮ নভেম্বরের মধ্যে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ দেবেন কিন্তু তা না করে নতুন করে আন্দোলন শুরু করলেন। কিন্তু তার আগেই কেন উপাচার্যের বাসভবন ঘেরাও করে একটি অনাকাক্সিক্ষত পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হলো তা আমার বোধগম্য নয়।

বিশ^বিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে ক্যাম্পাসে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে সবাইকে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, উপাচার্যের পক্ষে-বিপক্ষে আন্দোলন চলছে। এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকরা উপমন্ত্রীকে প্রশ্ন ছোড়েন- সরকার আন্দোলনকারীদের ফিরে আসার আহ্বান জানাচ্ছে কিনা, সে প্রশ্নের কোনো সুস্পষ্ট জবাব দেননি শিক্ষা উপমন্ত্রী। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা সবার আগে কর্তৃপক্ষ দেখবে। সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে বিশ^বিদ্যালয় বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা প্রশাসনের দায়িত্ব।

শিক্ষা উপমন্ত্রী আরো বলেন, ছাত্রলীগের পদধারী কেউ যদি জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ে সহিংসতা করে থাকে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। জাহাঙ্গীরনগরের বিষয়ে সরকার স্বপ্রণোদিত হয়ে কোনো তদন্ত বা ব্যবস্থা নেবেন কিনা- এ প্রশ্নের উত্তরে উপমন্ত্রী বলেন, জাহাঙ্গীরনগরের বিষয়ে সুস্পষ্ট অভিযোগ দিতে হবে। সুস্পষ্ট অভিযোগ দিলে অবশ্যই ইউজিসির মাধ্যমে তদন্ত করে বিশ^বিদ্যালয়ের আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিশ^বিদ্যালয় একটি স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। তাই সন্দেহের ওপর ভিত্তি করা কোনো অভিযোগ তদন্ত করা সম্ভব নয় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, বিশ^বিদ্যালয় স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। বিশ^বিদ্যালয়ে সহিংস পরিস্থিতি এড়াতে কর্তৃপক্ষ হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে। বিরোধী মতের কারণে সহিংস ঘটনার সৃষ্টি আমাদের কাম্য নয়। উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হোক, তা সাধারণ ছাত্রছাত্রীরা চায় না।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj