জেনে নিন : হাসিমুখে গ্রহণ করুন পেশাদারিত্ব

রবিবার, ৩ নভেম্বর ২০১৯

নতুন কোনো জায়গায় জয়েন করার পর সবচেয়ে বড় সমস্যা হয় অন্যদের সাথে কমিউনিকেশনে। নতুন পরিবেশে কার সঙ্গে কিভাবে কথা বলতে হবে সেটিও বুঝে উঠতে পারেন না অনেকে। প্রথম কিছুদিন বেশ কিছুটা অস্বস্তির মধ্য দিয়েই কাটাতে হয়। তবে এই কাজটা সহজ হয় যদি আপনি একটি হাসিমুখে কাজ শুরু করেন। একটুখানি হাসি পরবর্তী যে কোনো ভালোর জন্য একটা সহজ শুরু বলেই মানেন অনেকে। আপনার হাসিই আপনাকে বলে দেবে আপনি প্রতিষ্ঠানের প্রতি কতটা খুশি। যখন কোনো নতুন জায়গায় আপনি জয়েন করবেন তখন কিন্তু আপনার কথা, কলিগদের প্রশ্নের উত্তর, সবার সঙ্গে যোগাযোগ এই সব কিছুই আপনার পরবর্তী কাজের উপর প্রভাব ফেলবে। প্রথমবার কোনো কলিগের সঙ্গে দেখা করার সময় মিষ্টি হাসি দিয়ে কথা শুরু করুন, নিজের পরিচয় দিন। দেখবেন পরিবেশ অনেকখানি সহজ হয়ে এসেছে। জয়েন তো করলেন, পরিচয় পর্বও হলো। এরপরই কিন্তু সম্পর্কগুলো এগিয়ে যেতে থাকবে। অফিসের বাইরেও তাদের সঙ্গে কথা হতে পারে যে কোনো দরকারে। চেষ্টা করবেন প্রতিটি কথার পূর্ণ রূপ লিখতে। সংক্ষেপ কোনো শব্দ ব্যবহার না করাই ভালো। কথাটি শুনতে কি অদ্ভুত লাগছে একটু? প্রথমদিনই জলদি গিয়ে দেরিতে ফেরার পরামর্শ! এটা বলার কারণ হচ্ছে আপনি যেন অফিসের অবস্থা বুঝতে পারেন। যেহেতু আপনি নতুন, অফিসের সবার সঙ্গে পরিচয়ও নেই, তাই সকালে জলদি এসে একটু দেরি করে গেলে প্রায় সবার সঙ্গেই কথা বলা, পরিচয়টাও হয়ে যাবে। আর সময়মত অফিসে চলে আসা খুব গুরুত্বপূর্ণ। শুরুতেই যখন কলিগরা আপনার সময় সচেতনতার বিষয়ে জানবে তখন আপনার প্রতি ভালো লাগা তৈরি হবে সবারই। আর সকালের ট্রাফিক থেকে বাঁচতে দশ মিনিট আগে অফিসে চলে গেলে কোনো ক্ষতি তো নেই বরং বেশ সুবিধাই হয়।

ফ্যাশন (ট্যাবলয়েড)'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj