সোনালি স্মৃতি : বাড়ির ছাদে৩০ মিনিটে বিয়ে

শনিবার, ২ নভেম্বর ২০১৯

কাজলের জন্ম মুম্বাইয়ে। পরিবারের প্রায় সবাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত। আর অজয় দেবগান অমৃতসরের ছেলে। পাঞ্জাবি পরিবারে জন্ম। ২০ বছর তাদের বিয়ে হয়েছে। আর এই দীর্ঘ সময় ধরে যাবতীয় চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে একে অপরের পাশে রয়েছেন দুজনেই। বলি ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম সুখী দম্পতি বলা হয় তাদের। জানেন কি তাদের এই সুখী দাম্পত্যের রহস্য? কেনই বা ক্যারিয়ারের শীর্ষে থাকা অবস্থায় নিজের থেকে কম সফল অজয়কে বিয়ে করেছিলেন কাজল? ১৯৯৯ সালে দুজনে বিয়ে করেন। কাজল বা অজয় দুজনেই চেয়েছিলেন ব্যক্তিগত পরিসরে বিয়েটা সারতে। নিজের বিয়েতে কাজল কোনো পেশাদার আলোকচিত্রীও ভাড়া করেননি। আত্মীয়-স্বজনরাই ছবি তুলেছিলেন। বাড়ির ছাদে মাত্র ৩০ মিনিটে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়ে গিয়েছিল। তবে বিয়ের পর দু’মাস ছুটি নিয়ে ইউরোপে হানিমুনের পরিকল্পনা করেছিলেন তারা। যদিও শেষে পরিকল্পনা পরিবর্তন করে একমাস ঘুরেই বাড়ি ফিরেছিলেন দুজনে। কাজল যখন অজয় দেবগানকে বিয়ে করেন, সে সময় ক্যারিয়ারের একেবারে শীর্ষে ছিলেন তিনি। একটার পর একটা হিট ছবি হচ্ছে। অজয় তখন কাজলের মতো এতটা নাম করতে পারেননি। সে সময় অজয়-কাজলের বিয়েটা ইন্ডাস্ট্রির কেউই মানতে পারেননি। অনেকেই মনে করেছিলেন, সাফল্যের শীর্ষে থাকার সময়ে কাজলের বিয়েটা করা ঠিক হয়নি। তাদের সম্পর্কও বেশিদিন স্থায়ী হবে না, অনুমান করেছিলেন অনেকে। কিন্তু সবাইকে ভুল প্রমাণ করে ২০ বছর পূর্ণ করল তাদের দাম্পত্য। তাদের দুই সন্তানও রয়েছে। সম্প্রতি তাদের সুখী দাম্পত্যের রহস্য এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন কাজল। জীবনসঙ্গী হিসেবে অজয়কে বেছে নেয়ার কারণও শেয়ার করেছেন তিনি। কাজল চিরকালই ভীষণ কথা বলতে ভালোবাসেন। আড্ডা আর হাসি নিয়েই তার সারাদিন কেটে যায়। অজয় দেবগান সম্পূর্ণ উল্টো। তিনি স্বল্পভাষী মানুষ। কাজল মনে করেন, এই বিপরীত ব্যক্তিত্বই তাদের সুখী দাম্পত্যের চাবিকাঠি। কারণ অজয় দেবগান কথা কম বলেন এবং শোনেন বেশি। তার ওপর বিয়ের আগে টানা চার বছর ডেট করেছেন দুজনে। দুজনে সবার আগে খুব ভালো বন্ধু। এই বন্ধুত্ব তাদের একে অপরকে বুঝতে সাহায্য করেছে এই ২০ বছর। সে কারণেই অজয়কে বিয়ে করেছিলেন কাজল। আর সাফল্যের শীর্ষে কেন বিয়ে করে ক্যারিয়ার নষ্ট করলেন তিনি? পরিবার সবসময়ই ভীষণ পছন্দ করেন কাজল। যখন বিয়ে করেন তখন বছরে ৪-৫টা ছবি করতেন। কাজল ঠিক করে নিয়েছিলেন এবার তার পরিবার পরিকল্পনা করা উচিত। বছরে একটা করে ছবি করবেন আর পুরো সময়টা পরিবারকে দেবেন। বিয়ের পর ২০০১ সালে কাজল অন্তঃসত্ত্বা হন। কিন্তু তার ছ’মাসের মধ্যে গর্ভপাত হয় তার। গর্ভপাতের খবরে কাজল এবং অজয় দুজনেই প্রথমে ভেঙে পড়েছিলেন। এরপর কাজল আরো ক্যারিয়ার থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। গর্ভপাতের দু’বছর পর তাদের প্রথম সন্তান নাইসার জন্ম হয়। তার সাত বছর পর ছেলে যুগের জন্ম হয়। কাজল এখন পুরোপুরি তাদের নিয়েই ব্যস্ত।

:: মেলা ডেস্ক

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj