ছেচল্লিশে পা

শনিবার, ২ নভেম্বর ২০১৯

সাবেক বিশ্বসুন্দরী ও বলিউড অভিনেত্রী ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চনের জন্মদিন ছিল গতকাল ১ নভেম্বর। এবার ৪৬ বছরে পদার্পণ করলেন তিনি। এ বয়সেও এখনো তিনি বলিউডের রানী হিসেবে পরিচিত। এ ছাড়াও ভক্তদের স্বপ্নের নায়িকা ঐশ^রিয়া এখন বচ্চন বাড়ির বউ, সন্তানের মা। গত কয়েক বছর ধরে তার জন্মদিনে সপরিবার ছুটি কাটাতে যান বচ্চন পরিবারের পূত্রবধূ ঐশ্বর্যা রাই বচ্চন। উদ্যোগ যে তার স্বামী অভিষেকের, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। তাদের এবারের গন্তব্য ইতালি। ভ্যাটিকান সিটিতে ঐশ্বর্য জন্মদিন পালন করলেন। সোমবার রাতেই তারা রওনা হন। অবশ্য ইতালিতে যাওয়ার আরো একটি উদ্দেশ্য রয়েছে। আন্তর্জাতিক একটি ব্র্যান্ডের ঘড়ির সঙ্গে কুড়ি বছর ধরে যুক্ত রয়েছেন অভিষেকের স্ত্রী। সেই সুবাদে ওই ব্র্যান্ডের তরফে একটি অনুষ্ঠান ছিল ৩০ অক্টোবর। সেখানে যান ঐশ্বর্য। সেই ব্র্যান্ডের তরফেও ছিল একটি সারপ্রাইজ পার্টি।

জয়া বচ্চন ও অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চনকে ২০০৭ সালে বিয়ে করেন বলিউড তারকা ঐশ্বরিয়া রায়। তাদের সন্তান আরাধ্য জন্ম নেয় ২০১২ সালে। মা হওয়ার পর থেকে খুব বেছে বেছে কাজ করতে শুরু করেন ঐশ্বরিয়া। দায়িত্ব বেড়েছে এখন। একাধারে মা, স্ত্রী, মেয়ে ও পুত্রবধূর দায়িত্ব তো কম নয়। অন্য তারকাদের মতো তিনি চাননি, মেয়ে বড় হোক অন্য কারো কাছে। এক সাক্ষাৎকারে ঐশ্বরিয়া বলেছিলেন, ১৮ বছর থেকে আমি অনেক দায়িত্ব পালন করে আসছি। এসবে আমার অভ্যাস আছে।

আরাধ্য জন্মের পর ঐশ্বরিয়ার ওজন খানিকটা বেড়ে গিয়েছিল। এ জন্য অনলাইনে উপহাসের শিকার হতে হয়েছিল তাকে। সেসব গায়ে মাখেননি তিনি। এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, কোনো নেতিবাচকতাকে পাত্তা দেন না তিনি। সব সময় ইতিবাচক মন নিয়ে থাকেন। এতে নেতিবাচক কিছুই স্পর্শ করে না তাকে। ঐশ্বরিয়ার ভাষায়, নিজের ভেতরের মানুষটিকে একবার চিনে নিলে, বাইরের কোনো কথাই আর তোমার ওপর প্রভাব ফেলবে না। অন্যের ধারণার ওপর নিজেকে বিচার কোরো না। তোমাকে বিচার করার অধিকার কেবল তোমারই।

মেলা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj