এনামুল-রূপনের বিরুদ্ধে মামলা করবে দুদক : অবৈধ সম্পদ অর্জন

বুধবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৯

কাগজ প্রতিবেদক : অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এনামুল হক এনু, তার দুই সহযোগী হারুনুর রশীদ ও আবুল কালাম আজাদ এবং তার ভাই থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রূপন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলার অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গতকাল মঙ্গলবার কমিশনের নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়।

আজ বুধবার সংস্থাটির সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলা দুটি দায়ের করা হবে বলে নিশ্চিত করেছেন সংস্থাটির জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য। অনুসন্ধান কর্মকর্তা উপসহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নেয়ামুল আহসান গাজী বাদী হয়ে মামলা দায়ের করবেন।

অনুসন্ধান প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, এনামুল হক এনু ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে পরস্পর যোগসাজশে অবৈধ উপায়ে বিভিন্ন অবৈধ ব্যবসার মাধ্যমে ২১ কোটি ৮৯ লাখ ৪৩ হাজার টাকার সম্পদের অভিযোগ আনা হয়েছে। এর মধ্যে হারুনুর রশীদ ও আবুল কালাম আজাদ প্রায় চার কোটি টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনে সহযোগিতা করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে দুদক আইন ২৭(১) এবং দণ্ডবিধির ১০৯ ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে। দুদকের সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী অনুসন্ধান কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছেন। এ ছাড়া অন্য অনুসন্ধান প্রতিবেদনে এনামুল হক এনুর ভাই থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রুপন ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে ১৪ কোটি ২১ লাখ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

গত ১৮ সেপ্টেম্বর ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান শুরু করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। অভিযানে যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের বেশ কয়েকজন নেতার ক্যাসিনো ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া যায়। এর পরপরই গত ৩০ সেপ্টেম্বর অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়ে সংস্থাটির পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেনের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের টিম গঠন করা হয়। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- উপপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম, সালাউদ্দিন আহমেদ, সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী ও মোহাম্মদ নেয়ামুল আহসান গাজী।

প্রথম পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj