গ্যাসের বিষক্রিয়া : ধুনটে সেপটিক ট্যাংকে নেমে ২ শ্রমিক নিহত

সোমবার, ২১ অক্টোবর ২০১৯

ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি : ধুনট উপজেলায় সেপটিক ট্যাংকে কাজ করতে নেমে দুই নির্মাণ শ্রমিক নিহত হয়েছেন। গতকাল রবিবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার নিমগাছী ইউনিয়নের নাংলু গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- বগুড়ার গাবতলী উপজেলার তল্লাতলী গ্রামের সৈয়দ আলীর ছেলে মহিদুল ইসলাম (৩৫) ও তাজেম উদ্দিন মণ্ডলের ছেলে মিনহাজুল ইসলাম (২৭)।

পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয়রা জানান, উপজেলার নাংলু গ্রামের বেলাল আকন্দের বাড়িতে সেপটিক ট্যাংকের নির্মাণকাজ চলছে। প্রায় এক সপ্তাহ আগে সেপটিক ট্যাংকে ঢালাইয়ের করা হয়। রবিবার সকাল ৯টার দিকে শ্রমিক মহিদুল ইসলাম সেপটিক ট্যাংকের ভেতর নেমে সাটারের বাঁশ ও কাঠ খুলতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর তার কোনো সাড়া-শব্দ না পেয়ে তাকে উদ্ধার করতে সহকর্মী মিনহাজুল ইসলাম ওই সেপটিক ট্যাংকে নেমে বিষাক্ত গ্যাসে অচেতন হয়ে পড়েন।

স্থানীয়রা খবর দিলে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চেষ্টা চালিয়ে সেপটিক ট্যাংকের ভেতর থেকে নির্মাণ শ্রমিক মিনহাজুল ও মহিদুলকে উদ্ধার

করে। উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

ধুনট ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের টিম লিডার শামীম রেজা এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, নির্মাণাধীন সেপটিক ট্যাংকের ভেতর বিষাক্ত গ্যাসের সৃষ্টি হয়েছিল। সেই সেপটিক ট্যাংকের ভেতর কাজ করতে নেমে গ্যাসের বিষক্রিয়ায় শ্বাস বন্ধ হয়ে দুজন শ্রমিকের মৃত্যু হয়।

ধুনট থানার ওসি ইসমাইল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় নিহতদের পরিবার কোনো অভিযোগ করেনি। তাদের আবেদনের কারণে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মৃতদেহ দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj