পিতৃপরিচয় নিয়ে সন্দেহ : ফরিদপুরে ছেলেকে হত্যা করে পালাল পাষণ্ড বাবা

রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯

ফরিদপুর শহর প্রতিনিধি : ফরিদপুরে একমাত্র শিশুপুত্রকে হত্যা করে পালিয়েছে পাষণ্ড বাবা। গত শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে কোনো একসময় এ হত্যার ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে স্বামীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন নিহত ওই শিশুটির মা।

এ ঘটনাটি ঘটেছে ফরিদপুরের সদরপুর উপজেলার ভাষাণচর ইউনিয়নের চর চাঁদপুর গ্রামের মকদুম মুন্সীরডাঙ্গি এলাকায়। নিহত শিশুটির নাম রহমত প্রামাণিক। তার বয়স দুই বছর চার মাস। সে ওই গ্রামের হালিম প্রামাণিকের (২২) ছেলে।

পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। এ ঘটনার পর থেকে হালিম প্রামাণিক পলাতক রয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, তিন বছর আগে সদরপুর উপজেলার ভাষাণচর ইউনিয়নের চর চাঁদপুর গ্রামের মকদুম মুন্সীরডাঙ্গি এলাকার বাসিন্দা রিকশাচালক শুকুর প্রামাণিকের ছেলে হানিফ প্রামাণিকের বিয়ে হয় পাশের নগরকান্দা উপজেলার ডাঙ্গী ইউনিয়নের পোড়াদহ গ্রামের বাসিন্দা কৃষক শেখ সামসুর মেয়ে স্বপ্নার সঙ্গে। হানিফ ঢাকায় লেগুনা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত। তবে গত তিন মাস ধরে সে বেকার অবস্থায় এলাকায় ছিল।

শিশুটির মা স্বপ্না আক্তার বলেন, বেশ কিছু দিন সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে হানিফের মনে সংশয়-সন্দেহের সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে পারিবারিক গোলোযোগ চলছিল। হানিফ রহমতকে তার নিজের সন্তান বলে স্বীকার করছিল না।

স্বপ্না আরো বলেন, গত শুক্রবার তিনি বাবার বাড়ি থেকে স্বামীর বাড়ি আসেন। আসার পর থেকে স্বামীর সঙ্গে তার গণ্ডগোল হয়। তিনি সন্ধ্যা

৭টার দিকে শিশুটিকে নিয়ে ঘুমাতে যান। রাত ৯টার দিকে ঘুম থেকে উঠে তিনি দেখতে পান রহমত বিছানায় নেই।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে বাড়ি থেকে প্রায় ৩০০ মিটার দূরে ওই গ্রামের একটি ধানক্ষেত থেকে রহমতকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করেন এলাকাবাসী। পরে মণিকোঠা পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত কর্মকর্তা উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ফরহাদ হোসেন লাশটি থানায় নিয়ে যান।

এসআই মো. ফরহাদ হোসেন জানান, লাশটি উদ্ধার করে গতকাল শনিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে নিহতের মা স্বপ্না গতকাল সকালে সদরপুর থানায় তার স্বামী হানিফ প্রামাণিককে একমাত্র আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। তিনি বলেন, হানিফ প্রামাণিককে গ্রেপ্তারের জন্য জোর চেষ্টা চলছে।

শেষ পাতা'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj