‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ : পিছু ছাড়ছে না বিতর্ক

বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

বিনোদন প্রতিবেদক : ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতা শুরু থেকেই নানা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে। আগের দুবার প্রতিযোগীদের নিয়ে বিতর্ক হলেও এবার আয়োজকদের নিয়ে বিতর্ক হচ্ছে। আর তা হচ্ছে বিকল্প প্রতিযোগী তত্ত্ব। গত ১১ অক্টোবর রাফাহ্ নানজীবা তোরসাকে এবারের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। সে অনুযায়ী তার লন্ডনে অনুষ্ঠিতব্য ৬৯তম মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার কথা। কিন্তু তার এ যাওয়া নির্ভর করছে ভিসা প্রাপ্তির ওপর। সে ভিসা না পেলে যাবে প্রতিযোগিতার বিকল্প হিসেবে সেখানে যাবেন প্রতিযোগিতায় সর্বাধিক ভোট পাওয়া ও ‘ফেস অব বিউটি’ খেতাবপ্রাপ্ত নওশীন মিম। রাজধানীর গুলশানে এক কনভেনশন সেন্টারে গত ১৪ অক্টোবর আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়। আয়োজক প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান মেহিদী হাসান বলেন, আমাদের বিজয়ী তোরসা। আমরা এখন পর্যন্ত তাকেই লন্ডন পাঠানোর জন্য ঠিক করে রেখেছি। কিন্তু কোনো কারণে তার ভিসা না হলে স্যান্ড বাই হিসেবে মিমকে রেখেছি। এর আগে আমরা ‘মিস্টার ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতায়ও এ রকম স্যান্ড বাই রেখেছিলাম। মূলত ইউরোপিয়ান দেশগুলোর ভিসা আইন বেশ জটিল হওয়ায় এ উদ্বেগের সৃষ্টি হয়েছে বলে তিনি জানান। বিষয়টি তো নতুন বিতর্কের সৃষ্টি করবে এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমরা আশা করছি তোরসাই ভিসা পাবেন। তাই মনে হয় না কোনো বিতর্ক সৃষ্টি হবে। এর আগে ২০১৭ সালে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ হিসেবে ঘোষণা করা হয় জান্নাতুন নাঈম এভ্রিলকে। পরবর্তীতে তিনি বিবাহিত এ অভিযোগ উঠলে তাকে বাদ দিয়ে জেসিয়া ইসলামকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ‘বিয়ে বিতর্ক’ এড়ানোর জন্য গত বছর আগের আয়োজক অন্তর শোবিজ বিয়ে সংক্রান্ত কোনো তথ্য গোপনের প্রমাণ পাওয়া গেলে ১০ লাখ টাকা জরিমানার ঘোষণা দেন। তারপরও সেরা দশে উঠে আসা আফরিন সুলতানা লাবণীর বিরুদ্ধে বিয়ের

অভিযোগ উঠে।

বিনোদন'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj