ভর্তি পরীক্ষার আগে যত ভুল

বৃহস্পতিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯

লক্ষ্য নির্ধারণে ব্যর্থতা

এইচএসসি পরীক্ষার পর সঠিক লক্ষ্য নির্ধারণে ব্যর্থ হন অনেক শিক্ষার্থীই। তারা তাদের নিজেদের ভালো লাগার জায়গাটি বুঝতে পারেন না। সিদ্ধান্ত নেন পরিবারের চাপে পড়ে। অনেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির ক্ষেত্রে একাধিক জায়গার প্রস্তুতি একসঙ্গে নেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটারকৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘অনেকেই একসঙ্গে একাধিক নৌকায় পা দেয়। এর ফলে কোনো প্রস্তুতিই তারা ভালোভাবে নিতে পারে না। এটাই পরে ব্যর্থতার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।’

অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস

অনেকের মধ্যে দেখা যায় অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস; আবার অনেক শিক্ষার্থীই পর্যাপ্ত আত্মবিশ্বাসের অভাবে ভালো করতে পারেন না ভর্তি পরীক্ষায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিসংখ্যান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষায় অনেক প্রতিযোগী দেখে অনেকেই ভয় পেয়ে যায়, আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলে। এই আত্মবিশ্বাসহীনতা তাদের হতাশার দিকে ঠেলে দেয়। আবার মাত্রাতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসও ক্ষতিকর। ভালো ফলের জন্য দরকার শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত প্রচেষ্টার সংকল্প।’

না বুঝে মুখস্থ করার প্রবণতা

ভর্তি পরীক্ষার মৌসুমে বিষয়ভিত্তিক গভীর জ্ঞান অর্জন না করে মুখস্থ করার ঘোর বিরোধী এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘না বুঝে মুখস্থ করে সাময়িকভাবে কাজ চালিয়ে নেয়া যায়। কিন্তু পুরো বইয়ের ওপর পরীক্ষা হলে অথই জলে পড়তে হয়। তখন আর মুখস্থ করে পার পাওয়ার সুযোগ থাকে না। যদিও একবার ভালোভাবে বিষয়টি বুঝে নিলে তা সহজেই মনে পড়ে যায়।’

দীর্ঘসূত্রতা

‘ভবিষ্যতে পড়ব বলে পড়া জমিয়ে রাখা এবং সময়ের সঠিক ব্যবহার না করা একটি বদ অভ্যাস। এর ফলে শিক্ষার্থীদের শেষ সময়ে অতিরিক্ত চাপ নিতে হয়, যা অনেকের পক্ষেই সম্ভব হয় না।’ বলেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী হৃদয়। ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতির জন্য সময় থাকে সীমিত এবং এই সীমিত সময়ের সদ্ব্যবহার করাটা সফলতার জন্য অত্যন্ত জরুরি বলে মনে করেন তিনি।

অতিমাত্রায় কোচিং নির্ভরতা

শিক্ষার্থীদের একটা বড় অংশ মনে করে, শুধু একটি ভালো কোচিংয়ে পড়তে পারাটাই যথেষ্ট। কিন্তু ভর্তিযুদ্ধে ভালো করতে হলে নিজের চেষ্টা ও পরিশ্রমের দিকেও নজর দেয়া প্রয়োজন। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতাত্তি¡ক বিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থীর মতে, ‘পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে চাইলে কোচিং করতেই হবে, কোনো কথা নেই। কোচিং মূলত নির্দেশনা দেয়। তবে পড়ার কাজটা নিজেরই।’

অন্যের সঙ্গে নিজেকে তুলনা

সত্যিকারের প্রতিযোগিতা মূলত নিজের সঙ্গে। অথচ অনেক শিক্ষার্থীই অন্যের সঙ্গে অতিমাত্রায় তুলনা করেন নিজেকে; এর ফলে হতাশা ঘিরে ধরে তাদের। এ বিষয়ে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মনে করেন, অন্যদের সঙ্গে নিজেকে তুলনা করাটা বোকামি, এটি হাল ছেড়ে দেয়ার পর্যায়ে নিয়ে যায় মানুষকে।

অপ্রয়োজনীয় বিষয়ে মনোযোগ

ভর্তি পরীক্ষার মৌসুমে হাতে সময় থাকে সীমিত। তাই পড়তেও হয় বাছাই করে। এ বিষয়ে ধারণা পাওয়া যায় পূর্ববর্তী বছরের প্রশ্ন দেখলে, যা অনেক শিক্ষার্থীই করে না। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বলেন, ভর্তি পরীক্ষায় কিছু বিষয় ঘুরেফিরে আসে। সেগুলোর দিকে বেশি মনোযোগ দেওয়া প্রয়োজন।

:: ক্যাম্পাস ডেস্ক

ক্যাম্পাস'র আরও সংবাদ
Bhorerkagoj